৫৪ বছরের আদিবাসী প্রৌঢ়াকে গণধর্ষণের অভিযোগ পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে, গ্রেফতার অভিযুক্ত সহ চারজন

Subscribe Us

৫৪ বছরের আদিবাসী প্রৌঢ়াকে গণধর্ষণের অভিযোগ পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে, গ্রেফতার অভিযুক্ত সহ চারজন

পূর্ব বর্ধমান:- গ্রামের মোড়লের নির্দেশ অমান্য করায় ৫৪ বছরের আদিবাসী প্রৌঢ়াকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে।  অভিযুক্ত মোড়ল সহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে ভাতার থানার পুলিশ। নির্যাতিতা আদিবাসী প্রৌঢ়ার মেয়ে আগে তার কাছেই থাকতেন। বেশ কয়েকমাস আগে তার মেয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠার পর ওই মোড়লের নির্দেশেই মেয়েকে গ্রামছাড়া হতে হয়েছিল। নির্যাতিতা মহিলার মেয়ে অসুস্থ। তাকে দেখার কেউ নেই। সেজন্য তার কাছে থাকার জন্য মোড়লের অনুমতি চেয়েছিলেন। কিন্তু অনুমতি তো দেয়নি উল্টে দলবল নিয়ে  বাড়িতে চড়াও হয়।মহিলার অভিযোগ, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে মোড়ল সোম মুর্মু দলবল নিয়ে তার বাড়িতে চড়াও হয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে। মহিলা থানায় অভিযোগ দায়ের করার পর ওই চারজনকে গ্রেফতার করা হয়। যদিও অভিযুক্তদের দাবি, পূর্বের রাগের জন্য আক্রোশবশত তাদের নামে মিথ্যা মামলা করে ফাঁসানো হয়েছে

আদিবাসী প্রৌঢ়ার উপর যৌন নির্যাতন চালানো এবং তাঁকে ও তাঁর স্বামীকে মারধরের অভিযোগে মোড়ল সোম মুর্মু, মঙ্গল বেসরা ওরফে কাঠি, সুনীল মাড্ডি ও ডিঙ্গা মুর্মু ওরফে মাড্ডিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে । ডিঙ্গার বাড়ি ওড়গ্রামের লাইনপাড় এলাকায়। বাকিদের বাড়ি পাহাড়পুরে। বুধবার রাতে বাড়ি থেকে পুলিস তাদের গ্রেপ্তার করে। বৃহস্পতিবার ধৃতদের বর্ধমান আদালতে পেশ করা হয়। তদন্তের প্রয়োজনে ধৃতদের ৭ দিন নিজেদের হেফাজতে নিতে চেয়ে আদালতে আবেদন জানায় পুলিস। ধৃতদের ২ দিন পুলিসি হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন ভারপ্রাপ্ত সিজেএম। ধৃতদের মেডিকেল পরীক্ষা করানোর জন্য আবেদন জানান তদন্তকারী অফিসার। তা মঞ্জুর করে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের ফরেন্সিক স্টেট মেডিসিনের বিভাগীয় প্রধানকে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক।


Post a comment

0 Comments