মোবাইল আর ইন্টারনেটের যুগে বহুরূপী লোকশিল্প আজ বিলুপ্তির পথে

Subscribe Us

মোবাইল আর ইন্টারনেটের যুগে বহুরূপী লোকশিল্প আজ বিলুপ্তির পথে



প্রতিনিধি,পানাগড়:- একবিংশ শতাব্দীর বুকে মোবাইল আর ইন্টারনেটের যুগে বহুরূপী লোকশিল্প আজ বিলুপ্তির পথে। আজ কের দিনে বাচ্চারা জানেই না কে এই বহুরুপী । তারা জানে মোবাইল গেমের অনেক নাম।বহুরূপী দের আমরা কখনো হনুমান,তারকা রাক্ষসী, দইওয়ালা,শিব ,কালী , হঠাৎ বাবু, এছাড়াও নানান রূপে দেখেছি।আজ আর দেখা যায় না এদের।আছে শুধু স্মৃতির অকপটে স্মৃতিকথা।হঠাৎ পথের ধারে দেখা বহুরুপী পিন্টু চৌধুরী বেধ-এর সঙ্গে । তিনি বললেন, এখনকার মানুষ আমাদেরকে স্মৃতি থেকে মুছেই ফেলেছে। আজকে এই শিল্পের অবস্থায় জন্য অনেকে শিল্প ছেড়ে নানা কাজে তারা মন দিয়েছেন।




এই করোনা মহামারীর সময় যেখানে মানুষ রাস্তায় নামতে ভয় পাচ্ছে তবুও পেটের টানে সুদূর লাভপুরের কিন্নাহার থেকে বুদবুদ,পানাগড় এর রাস্তায় বহুরূপী পিন্টু চৌধুরী বেধ সং সেজে আর মুখে মাক্স পড়ে এই এলাকার মানুষকে বিনোদন দিতে এলেন আর দিলেন করোনা সচেতনতা বার্তা।



আজকের দিনে বহুরুপী শিল্প একটি রুগ্ন শিল্প। রাজ্য সরকার থেকে কেন্দ্রীয় সরকার কেউই চোখ দেয়নি এই শিল্পের প্রতি।আজ তাদের বহুরূপী সং সাজার রং এর দাম বেড়ে গেছে, এক দিনে রোজ করে ওঠেনা রং এর দাম। বাড়িতে রয়েছে পরিবার, তাদের মুখে অন্ন যোগানো আজ দায় হয়ে উঠছে।বর্তমান সরকার তাদের আজ ভাতা দিলেও,সেই টাকায় কি আর দিন চলে ? আগামী দিনে এই শিল্প আর দেখা যাবে না হয়তো, দেখা যাবে হয়তো কোন ইতিহাসের বইয়ের পাতায়।




FOLLOW US AT:-





Post a comment

0 Comments