রেলে চাকরি করে দেবার নামে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৫ জন

Subscribe Us

রেলে চাকরি করে দেবার নামে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৫ জন



রেলে চাকরির ভুয়ো নিয়োগপত্র দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার একটি বড়সড় চক্রের ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রাম থানার পুলিস। ধৃতদের মধ্যে একজন মহিলাও আছে।সোমবার রাতে বাড়ি থেকে পুলিস তাদের গ্রেপ্তার করে। ধৃতদের নাম গোবিন্দ দে, ভৈরব বন্দ্যোপাধ্যায়, রতন রায় ও মতিলাল কোনার ও পূর্ণিমা দে। পূর্ণিমা দে ও গোবিন্দ দে তারা সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী।পূর্ণিমা দে,গোবিন্দ দে,ভৈরব বন্দ্যোপাধ্যায়, মতিলাল কোনার এদের প্রত্যেকের বাড়ি গুসকরা পৌর এলাকায়।রতন রায় এর বাড়ি মঙ্গলকোটের কেশবপুরে।
চাকরি দেওয়ার নামে ভুয়ো নিয়োগপত্র দিয়ে টাকা হাতানোর কথা ধৃতরা কবুল করেছে বলে পুলিসের দাবি। তাদের সঙ্গে আরও কয়েকজন জড়িত বলে ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জেনেছে পুলিস।চক্রের সঙ্গে রেলের কেউ জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিস।ধৃতদের কাছ থেকে ভুয়ো নিয়োগপত্র, জয়েনিং লেটার চারটি মোবাইল উদ্ধার হয়েছে।মঙ্গলবার ধৃতদের বর্ধমান আদালতে পেশ করা হলে পূর্ণিমা ও ভৈরবকে ১০ দিন নিজেদের হেফাজতে চেয়ে আদালতে আবেদন জানায় পুলিস। দুজনকে চার দিনের পুলিসি হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত।বাকিদের বিচার বিভাগীয় হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত।
পুলিস সূত্রে জানা গেছে, গুসকরা স্কুল মোড়ের বাসিন্দা সব্যসাচী মণ্ডলের সঙ্গে পূর্ণিমা ও গোবিন্দর পরিচয় হয়। পূর্ণিমা সব্যসাচীকে রেলে চাকরি করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে চাকরির জন্য টাকা লাগবে বলে জানায়। তার কথায় বিশ্বাস করে কয়েক দফায় ৪ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা দেন সব্যসাচী। টাকা মেলার পর প্রতারকরা সব্যসাচীকে শিয়ালদহে রেলের অফিসের নিয়ে যায়। সেখানে তাঁর ইন্টারভিউ নেওয়া হয়। তারপর তাঁকে রেলের সিল ছাপ দেওয়া একটি নিয়োগপত্র দেওয়া হয়। তার কিছুদিন পর এক ব্যক্তি তাঁকে ফোন করে নিয়োগপত্রটি জাল বলে জানায়। বিষয়টি পূর্ণিমা ও গোবিন্দকে জানান সব্যসাচী। এরপর তাঁকে নিয়োগপত্র নিয়ে লিলুয়ায় চাকরিতে যোগ দিতে যেতে বলা হয়।সেখানে গিয়ে জানতে পারে সেই নিয়োগপত্র টি ভুয়ো।এরপরই পূর্ণিমার কাছে টাকা ফেরত চায় সব্যসাচী। কিন্তু সে টাকা দিতে অস্বীকার করে। তারপরই পুলিসের কাছে অভিযোগ করে সব্যসাচী।
তদন্তে নেমে পুলিস জেনেছে, চক্রটির জাল বহুদূর বিস্তৃত। এর সঙ্গে বেশ কয়েকজন জড়িত রয়েছে। চক্রটি বিভিন্ন জনের কাছ থেকে চাকরি দেওয়ার নাম করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

Post a Comment

0 Comments

close