করোনার আবহের মধ্যেই জলসা, পূর্ব বর্ধমানের অনাময় হাসপাতালে

Subscribe Us

করোনার আবহের মধ্যেই জলসা, পূর্ব বর্ধমানের অনাময় হাসপাতালে


পূর্ব বর্ধমান:- করোনার আবহের মধ্যেই মাইক বাজিয়ে নাচগান হল বর্ধমানের অনাময় হাসপাতালে। বৃহস্পতিবার বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উইং অনাময় সুপার স্পেশালিটি বিশ্বকর্মা পুজোর আয়োজন করা হয়।রাতে রীতিমতো সাউণ্ডবক্স বাজিয়ে চলে অনুষ্ঠান। কোভিডের আতঙ্কে জেরবার মানুষজন।অনাময় হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীরাও কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। সেখানে খোদ হাসপাতালে এই অনুষ্ঠান কিভাবে হয় সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে।

বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সুপার স্পেশালিটি উইং অনাময় হাসপাতাল। এখানে প্রধানত  হার্টের চিকিৎসা হয়, রোগীর ভর্তি থাকে । অনাময় হাসপাতালের কর্মীরা প্রতি বছরের মত এবারেও বিশ্বকর্মা পুজোর আয়োজন করেন। সেখানেই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আয়োজন করা হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। সেখানেই সাউণ্ড সিস্টেমে শুরু হয় গান। গায়ক গায়িকারা একাধিক গান পরিবেশন করেন। এই  নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। প্রশ্ন উঠেছে আয়োজকদের দায়িত্বজ্ঞান নিয়েও। খোদ হাসপাতালের চত্বরের  মধ্যে কিভাবে এইভাবে গান বাজনার আয়োজন করা যায়, সেই নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। একইভাবে কোভিড পরিস্থিতিতে যেখানে সমস্ত অনুষ্ঠান বাতিল করা হচ্ছে সেখানে হাসপাতাল চত্বরে এই অনুষ্ঠান করা নিয়ে ক্ষুব্ধ সকলে।

অনাময় হাসপাতালে ভর্তি থাকা মঙ্গলকোটের এক রোগীর আত্মীয় বলেন, ভিতরের আমরা জোরে কথা বললে আমাদের বারণ করা হয়। কিন্তু হাসপাতাল এইভাবে গানবাজনা করছে এটা মানা যায়না। বর্ধমানের আলুডাঙ্গার এক রোগীর পরিবারের সদস্য  দেবু ঘোষ বলেন, অনেকে রোগীর পরিজন রাতে হাসপাতাল চত্বরে থাকেন, এই মাইক বাজানো নিয়ে তাঁরাও  তিতিবিরক্ত।

যদিও ঘটনাকে বড় করে দেখতে নারাজ আনাময় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাঁরা বলেন, বিশ্বকর্মা পুজোর পর সন্ধ্যায় কম সাউণ্ডে অনুষ্ঠান করা হয়। সন্ধ্যা আটটার মধ্যেই অনুষ্ঠান শেষ হয়ে যায়। রোগীদের সমস্যা হওয়ার কথা নয়। অনাময় হাসপাতালের সুপার শকুন্তলা সরকার বলেন, শুক্রবার সকালে এই ব্যাপারে শুনেছি। রোগীদের তরফে কোন অভিযোগ পায়নি। তবুও আগামীদিনে যাতে এই কাজ না হয় সেই বিষয়ে কর্মীদের সতর্ক করা হয়েছে।বিজেপি নেতা শুভম নিয়োগীর অভিযোগ, তৃণমূল কংগ্রেস কর্মচারী ইউনিয়নের উদ্যোগেই রাতে জলসার আয়োজন করা হয়। 

এই বিষয়ে জেলা পরিষদের সহসভাধিপতি দেবু টুডু বলেন এই ঘটনা সত্যি হলে তা চরম অন্যায়।খবর নিয়ে দেখা হবে।দোষীদের ছাড়া হবে না।

Post a comment

0 Comments