কৃষি বিলের বিরুদ্ধে 'রেল রোকো' আন্দোলন শুরু করেছেন পাঞ্জাবের কৃষকরা , ১৪ টি ট্রেন বাতিল

Subscribe Us

কৃষি বিলের বিরুদ্ধে 'রেল রোকো' আন্দোলন শুরু করেছেন পাঞ্জাবের কৃষকরা , ১৪ টি ট্রেন বাতিল




ওয়েবডেস্ক,News24x7:- পাঞ্জাবের কৃষকরা কৃষি বিলের বিরুদ্ধে আন্দোলন তীব্র করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার, থেকে কৃষকরা রাজ্যে তিন দিনের 'রেল রোকো' আন্দোলন শুরু করেছেন।অমৃতসর ফিরোজপুরে কৃষকরা রেলপথে লাইন এর ওপর বসে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। দিল্লি আসা-যাওয়া ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। কৃষকরা ২৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার রাজ্যব্যাপী বন্ধের ঘোষণা করেছে। এ কারণে ফিরোজপুর রেলওয়ে বিভাগ ১৪ টি ট্রেন বাতিল করেছে। সরকার যদি বিল প্রত্যাহার না করে তাহলে  কৃষকরা ১ অক্টোবর থেকে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন।
করোনোভাইরাস মহামারীর মধ্যে পাঞ্জাবের কৃষকদের বিক্ষোভ দেখে বোঝা যাচ্ছে যে, বিলগুলি সংসদে পাস হওয়া সত্ত্বেও, কৃষকদের সেগুলি গ্রহণের ইচ্ছা নেই। কৃষকরা আশঙ্কা করছেন যে একবার ম্যান্ডির বাইরে ফসল সংগ্রহ শুরু হলে তাদের ন্যূনতম সহায়তা মূল্য (এমএসপি) ব্যবস্থা হারাতে হতে পারে।
এদিন সকালে অমৃতসরের গ্রামীণ অঞ্চলে, কৃষকরা এবং তাদের পরিবারের সবাই, শিশু এবং বয়স্করা, সকলেই রেল লাইনের উপর বসে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন।
একজন কৃষক বলেন, "সরকার আমাদের কৃষকদের সাথে কথা বলতে চায় না। আমরা যদি এই আইন না মানি তবে সেগুলি জোর করে প্রয়োগ করা যাবে না। আমরা লড়াই চালিয়ে যাব, এই লড়াই ২বছর, ৫বছর অথবা ১০ বছর ও চলতে পারে।সরকার ভেবেছিলো যে দেশের কৃষক-শ্রমিকরা এই বিলগুলি গ্রহণ করবে,কিন্তু আমরা এই বিল মানি না। " কৃষকরা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন যে, সরকার যদি এই বিলগুলি প্রত্যাহার না করে তবে তাদের আন্দোলন আরো তীব্র হবে। 
কৃষক দের এই আন্দোলনের ফলে ২৪ থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পাঞ্জাবে রেল চলাচল বাতিল করা হয়েছে।২৪ থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর কোনও যাত্রী এবং পার্সেল ট্রেন পাঞ্জাব যাবে না। ট্রেনগুলি অম্বলা ক্যান্ট, সাহারানপুর এবং দিল্লি স্টেশনগুলিতে শেষ করা হবে। আম্বালা-লুধিয়ানা এবং আম্বালা-চন্ডীগড় রেলপথ বন্ধ থাকবে।৩৪ টি ট্রেন ৩ দিনের মধ্যে স্বল্প মেয়াদে বাতিল এবং রুট পরিবর্তন করা হবে।এর মধ্যে ২ টি যাত্রী ট্রেন রয়েছে এবং ৮ টি পার্সেল ট্রেন রয়েছে।

Post a comment

0 Comments