চাষিদের জমিতে জোর করে রাস্তা তৈরীর অভিযোগ পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে

Subscribe Us

চাষিদের জমিতে জোর করে রাস্তা তৈরীর অভিযোগ পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে



গলসিতে চাষিদের জমিতে জোর করে  রাস্তা নির্মাণ করার অভিযোগ উঠছে বেশ কয়েকজন বালি ঘাট মালিকের বিরুদ্ধে। পুর্ব বর্ধমানের গলসি ১ নম্বর ব্লকের লোয়া কৃষ্ণরামপুর পঞ্চায়েতের লোয়াপুর এলাকার ঘটনা। গত ২ নভেম্বর এই বিষয়ে চাষিরা গলসি ১ নম্বর ব্লকের বিএলআরওকে লিখিত ভাবে জানিয়েছেন। তারপরও প্রশাসন কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় রাস্তা তৈরীর কাজ বন্ধ করে দিলেন জনা পঞ্চাশেক চাষি। চাষিদের দাবী কুকুই নদীর ঘাট থেকে সোদপুর মানা পর্যন্ত আনুমানিক দেড় কিলোমিটার সরকারি রাস্তা আছে। ওই রাস্তাটি তাদের মাঠ থেকে ফসল তোলার কাজে ব্যবহার করা হয়। বর্তমানে সোদপুর মানার কাছে দামোদর নদ থেকে বালি ব্যবসায়ীরা বালি তুলে ওই রাস্তা দিয়ে বালি  ট্রাকে করে নিয়ে যাচ্ছেন। বালি গাড়ি চলাচলের জন্য রাস্তার উপর কালো ছাই ও পাথর ব্যবহার করছেন। রাস্তার কালো ছাই জমিতে পরে কৃষি কাজে ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে ও জমির ফলনে মার খাচ্ছে বলে দাবী করেন চাষিরা। তাছাড়াও বালি গাড়ি উল্টে গিয়ে তাদের ফসলের ক্ষতি করছে। তারা বলেন বর্তমানে এলাকার কিছু অবৈধ বালিঘাট মালিক নিজেদের স্বার্থে রাস্তাটি চওড়া করছেন। ওই কাজের জন্য জোর করে চাষিদের জমি পাঁচ থেকে সাত ফুট করে নিয়ে মাটি ফেলে দখল করছে।  জোর করে জেসিবি দিয়ে মাটি ফেলে দিচ্ছে জমির উপর। এবিষয়ে তারা বিএলআরও কে লিখিত ভাবে জানিয়েছেন। তবে স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য গাজানন আঁকুড়ে জানান, চাষিদের জমি জোর করে দখল করা হচ্ছেনা। এলাকার মানুষজন  সহ সকলের সুবিধার্থে রাস্তার জায়গার উপরেই রাস্তা তৈরি হচ্ছে যেটি সকলেই জানেন। জায়গা মাপযোগ করে ওই রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। চাষিদের জমিকে দখল করে কোন কিছু করা হচ্ছে না বলে দাবী করেন গজানন বাবু।

Post a Comment

0 Comments

close