কোভিড বিধি মেনেই নবান্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হল বর্ধমানের অধিষ্ঠাত্রী সর্বমঙ্গলা মন্দিরে

Subscribe Us

কোভিড বিধি মেনেই নবান্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হল বর্ধমানের অধিষ্ঠাত্রী সর্বমঙ্গলা মন্দিরে



কোভিড বিধি মেনেই নবান্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হল বর্ধমানের অধিষ্ঠাত্রী সর্বমঙ্গলা মন্দিরে। বর্ধমানের সর্বমঙ্গলা মন্দির দক্ষিণবঙ্গের অন্যতম পীঠস্থান। এখানে দেবী সর্বমঙ্গলা রূপে পুজিতা হন। এই মন্দির ঘিরে অনেক উপকথা আছে। রাজা তেজচন্দের আমলে এখানে সুন্দর মন্দির পত্তন হয়। তার আগে জেলেবাড়ির মেছেনীরা নাকি এই মূর্তির উপরে গুগলি শামুক ভাঙতেন।স্বয়ং রামকৃষ্ণ এই মন্দিরে এসেছেন বলে কথিত আছে। কোভিড সংক্রমণের কারণে টানা ছ'মাস ধরে মন্দিরের গেটে তালা পড়েছিল। নিন নর্মালে ধীরে ধীরে সব কিছু স্বাভাবিক হতেই খুলে গেছে কোভিডের নির্দেশিকা মেনে গেটের তালা।
রবিবার হল নবান্ন উৎসব। সংক্রমণ এড়াতে রয়েছে স্যানিটাইজার টানেল।আছে স্যানিটাইজার।মাস্ক ছাড়া নো এন্ট্রি।স্বাস্থ্য আগে; শাস্ত্র পরে, এই এবারের মূলমন্ত্র। ট্রাস্টের সম্পাদক সঞ্জয় ঘোষ জানিয়েছেন  সর্বমঙ্গলা মন্দিরে নবান্ন উৎসব দিয়ে গোটা রাঢ়বঙ্গে নবান্নের সূচনা হল। কোভিডের জন্য এতদিন ভোগবিলি বন্ধ ছিল।আজই প্রথম সাধারণের জন্য ভোগ বিলি করা হবে।তবে তা সংখ্যায় কম অন্য বছরের তুলনায়। এবার ৮০০ জনকে ভোগ বিলি করা হবে।তবে সেখানের কোভিড বিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই সব কিছুর আয়োজন করা হয়েছে। অন্য বছর নবান্ন অনুষ্ঠানে প্রচুর লোকজনের সমাবেশ হত। কিন্তু এবার সেই তুলনায় বেশ কম। কোভিড সংক্রমণের কারণে ছ'মাস মন্দির বন্ধ ছিল।কিন্তু রাজার আমল থেকে চলে আসা রীতির কোনো অন্যথা হয়নি।আজও হবেনা।জানিয়েছেন ট্রাস্টি বোর্ডের কর্মকর্তারা।তাছাড়া এখনো মন্দির চত্বরে বসে ভোগ খাওয়ানোর যে রীতি তা বন্ধ রাখা হয়েছে।

Post a Comment

0 Comments

close