চরম বিপাকে শস্যগোলা পূর্ববর্ধমানের চাষীরা,মমতা স্বর্ণ প্রজাতির ধান চাষ করে সর্বশান্ত গলসির কৃষকরা

Subscribe Us

চরম বিপাকে শস্যগোলা পূর্ববর্ধমানের চাষীরা,মমতা স্বর্ণ প্রজাতির ধান চাষ করে সর্বশান্ত গলসির কৃষকরা

 

গলসি:- মমতা স্বর্ণ প্রজাতির ধান চাষ করে মহাবিপাকে গলসি ১ নম্বর ব্লকের লোয়াপুর ও কৃষ্ণরামপুর অঞ্চলের চাষীরা।এলাকার প্রায় চারশো বিঘে জমিতে মমতা স্বর্ণ ধান চাষ করেছিলেন চাষিরা। ফুলানোর(ধানগাছে ফুল) পর সেই ধানের ভিতরে চাল তৈরী হচ্ছে না বলে জানালেন এলাকার চাষিরা। বিঘের পর বিঘে জমিতে একই অবস্থা । অধিক ফলনের আশায় কেউ পাঁচ বিঘে তো কেউ দশ বিঘে আবার কেউ বা পনেরো বিঘে জমিতে মমতা স্বর্ণ ধান চাষ করেছিলেন। কেউ ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে, কেউ মহাজানের থেকে দাদন নিয়ে চাষ করেছেন খরিফ মরশুমে । মরশুমের শেষে ফলন দেখতে না পেয়ে হতাশ এলাকার চাষিরা। সময় মতো সব পরিচর্যা করার পরও বা জমিতে নাগাড়ে সার ও কীটনাশক প্রয়োগ করেও ধানের ফলন একেবারে নাই।তাই এখন মাথায় হাত এলাকার কয়েকশো চাষীর। ধান ফোলানের পর চালের পরিবর্তে আগরা অর্থাৎ ফাঁকা শিস তৈরী হয়েছে।বেশির ভাগ  জমির ধানই বগা পড়েছে মানে সাদা শিস হয়েছে। মাঠের দিকে তাকালে চোখ ছলছল করছে চাষিদের। 
কৃষ্ণরামপুরের বাসিন্দা সেখ নুর হোসেন বলেন, ভালো ফলনের জন্য চড়াদামে ভালো জাতের মমতা স্বর্ণ ধানের বীজ কিনে জমিতে চাষ করেছিলেন কিন্তু ফলন তো ভালো হলো না। উল্টে এখন কি করে সংসার চলবে তা ভেবে পাচ্ছি না।এলাকার চাষী ওসমান আলি বলেন, বগা আটকানোর জন্য প্রায় প্রতিদিনই জমিতে কীটনাশক প্রয়োগ করা হচ্ছে তবুও কিছুতেই কিছু হচ্ছে না। ধারদেনা করে চাষ করা হয়েছে। সেই দেনা কি ভাবে শোধ করা হবে আর সংসার চলবে কি করে তা জানি না।
এক দিকে করোনা ও লক ডাউনের জেরে কাজকর্ম বন্ধ। বাইরে থেকে সব উপার্জনের রাস্তা এখন পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে। এমন অবস্থায় প্রকৃতির মারে যেন সর্বশান্ত হয়ে পড়েছেন এলাকার চাষিরা। কি করে যে পেট চলবে আর কি করে যে ঋণ থেকে মুক্তি পাবেন সেই নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন এলাকার ছোট বড় সব চাষিই। বিঘের পর বিঘে জমি যেন সাদা কাশফুলের মতো হয়ে গেছে। কি করবে ভেবে কুল কিনারা পাচ্ছেনা চাষিরা। এখন অবস্থায় তারা সরকারী সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন। 
এই বিষয়ে গলসি ১ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সহসভাপতি অনুপ চ্যাটার্জ্জী বলেন, তিনিও মাঠে গিয়ে দেখেছেন। মাঠের অবস্থা খুবই খারাপ। ধানের ফলন একেবারেই হবে না।সরকারি ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত চাষীদের জন্য ব্যাবস্থা নেওয়ার তিনি আশ্বাস দেন।

Post a comment

0 Comments