আসানসোল আদালতে পসকো মামলায় ঐতিহাসিক সাজা ঘোষণা

Subscribe Us

আসানসোল আদালতে পসকো মামলায় ঐতিহাসিক সাজা ঘোষণা



নীলেশ দাস,আসানসোল:- শুক্রবার আসানসোল আদালতে পসকো মামলায় ঐতিহাসিক সাজা ঘোষণা করেন বিচারপতি শরণ্যা সেন প্রসাদ।আসানসোল আদালতে সরকারি আইনজীবী তাপস উকিল জানান এগারজন স্বাক্ষী এবং চারজন চিকিৎসকের স্বাক্ষ প্রমাণ নিয়ে গত বুধবার বিচারপতি কৃষ্ণ ভুইঁয়াকে দোষী সাব্যস্ত করেন এবং শুক্রবার তার সাজা ঘোষণা করেন। বিচারপতি শরণ্যা সেন প্রসাদ দোষী কৃষ্ণ ভুইঁয়াকে নিবালিকার উপর জঘন্যতম শারীরিক নির্যাতনের কারণে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ২০০০ টাকা জরিমানা অনাদায়ে দু মাস সশ্রম কারাদণ্ড এবং তিন লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে নির্যাতিতার পরিবারকে। তাপস উকিল জানান কৃষ্ণ ভুইঁয়া বিবাহিত তার এক ছেলে এবং এক মেয়ে আছে বলে সাজা কম করার আবেদন জানালেও বিচারপতি তার আবেদন নামঞ্জুর করে দিয়েছেন।
গত ২০১৭ সালের ১৯ এপ্রিল রাণীগঞ্জ থানার মঙ্গলপুর এলাকায় সকাল সাড়ে এগারটা নাগাদ বিস্কুট খাওবার লোভ দেখিয়ে তিন বছরের এক নাবালিকা মেয়েকে তার ঘরে নিয়ে যায় এলাকার বাসিন্দা বিবাহিত কৃষ্ণ ভুইঁয়া। মেয়েটার মা মারা যাওয়াতে তার জেঠিমার কাছে থাকতো, জেঠিমা ইটভাটায় কাজ করে বাড়ীতে মেয়েটাকে দেখতে না পেয়ে চারিদিকে খুঁজতে শুরু করে। প্রায় দেড় ঘন্টা পর কৃষ্ণ ভুঁইয়ার মা মেয়েটাকে রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের বাড়ীর সামনে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়। মেয়েটার জেঠিমা রাণীগঞ্জ থানাতে কৃষ্ণর বিরুদ্ধে শারীরিক নির্যাতনের মামলা করেন এবং ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে ভর্তি করার পরামর্শ দেন। রাণীগঞ্জ থানার পুলিশ কৃষ্ণর বিরুদ্ধে পসকো ধারায় মামলা করেন, পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে গেলে জানা যায় সে পলাতক। ২০১৮ সালের ১৭ এপ্রিল পুলিশ কৃষ্ণকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠালে তাকে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 
বিচারপতির সাজা ঘোষণা করার পর রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন শিল্পাঞ্চলের মানুষ তাদের আশা পসকো মামলার সাজা শোনার পর নাবালিকাদের উপর যৌন নির্যাতনের হার কমবে। 

Post a comment

0 Comments