কবরস্থানের জায়গা কেনা নিয়ে দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, গ্রেপ্তার ৬ জন

Subscribe Us

কবরস্থানের জায়গা কেনা নিয়ে দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, গ্রেপ্তার ৬ জন



কবরস্থানের জায়গা কেনা নিয়ে পাড়ায় বৈঠকের সময় দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে আহত হলেন তিনজন। এই ঘটনায় পুলিশ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।পূর্ববর্ধমানের গুসকরার  তুরিপাড়ায় প্রায় ২০ - ২২ টি মুসলিম সম্প্রদায় বসবাস রয়েছে। এই পাড়ায় কোন কবরস্থান নেই।তাই পাড়ার  পরিবারগুলি মিলে চাঁদা তুলে জমি কিনে কবরস্থান  নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেন। সেইমতো অনেক আগে থেকেই নিজেদের মধ্যে চাঁদা তুলে সংগ্রহ করে রাখা হচ্ছিল টাকা।
শুক্রবার রাতে প্রস্তাবিত কবরস্থানের জমি কেনা ও চাঁদার হিসাব সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে পাড়ায় বৈঠক হচ্ছিল। সেসময় ৫০০০ টাকার গড়মিল হচ্ছিল। ওই পাড়ার বাসিন্দা ডালিম শেখের পরিবার দাবি তারা মুজিবর শেখের কাছে ৫০০০ টাকা চাঁদা বাবদ আগেই জমা দিয়েছেন।কিন্তু মুজিবুর তা অস্বীকার করেন। এনিয়ে বৈঠকে দু'পক্ষের মধ্যে বচসা থেকে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। বাঁশ, লাঠিসোঁটা, বটি ইত্যাদি নিয়ে দু'পক্ষ মারপিট শুরু করে দেয়।সংঘর্ষের সময় তুড়িপাড়ার বাসিন্দা গুসকরা পুরসভার অস্থায়ী কর্মী সাবির শেখ ৯ নম্বর ওয়ার্ডে জলের পাম্প অপারেটরের কাজ করছিলেন।অভিযোগ তাকে তুলে নিয়ে এসে পেটানো হয়।নূর ইসলাম শেখ নামে একজন সাবিরকে বটির কোপ মারলে সাবিরের হাতের বুড়ো আঙ্গুল বিছিন্ন হয়ে যায়। গুরুতর জখম হন মুজিবুর শেখ ও তার ছেলে সাহিদ শেখও। খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহত তিনজনকে প্রথমে গুসকরা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।রাতেই গুরুতর জখম তিনজনকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। দু'পক্ষই  থানায় অভিযোগ দায়ের করে।এই ঘটনায় পুলিশ ৬ জনকে গ্রেফতার করে। ধৃতদের শনিবার বর্ধমান আদালতে তোলা হয়।ধৃতদের নাম ডালিম শেখ,শেখ নূর ইসলাম,সালমান মিঞা,সফিকুল শেখ,সুরজ শেখ ও শেখ নাজমুল ইসলাম। এদের প্রত্যেকের বাড়ি গুসকরা পুরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের তুরিপাড়ায়।

Post a comment

0 Comments