সজল ধারা প্রকল্পের পানীয় জল বন্ধ থাকায় দুই পাড়ার মধ্যে বিবাদের জেরে উত্তপ্ত হয়ে উঠলো পূর্ব বর্ধমানের ভাতার

Subscribe Us

সজল ধারা প্রকল্পের পানীয় জল বন্ধ থাকায় দুই পাড়ার মধ্যে বিবাদের জেরে উত্তপ্ত হয়ে উঠলো পূর্ব বর্ধমানের ভাতার

 


ভাতারের সাহেবগঞ্জ ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিঘড়া গ্রামের পানীয় জল প্রকল্পের পাম্পে তালা লাগানোর জেরে গণ্ডগোল বাঁধে বুধবার । এই নিয়ে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। খবর পেয়ে ভাতার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হয়। পুলিশ উত্তেজিত গ্রামবাসীদের শান্ত করে জল প্রকল্প চালু করার ব্যবস্থা করে। ভাতারের বিঘড়া গ্রামে একটি সজলধারা প্রকল্পের মাধ্যমে বাড়ি বাড়ি পানীয় জল সরবরাহ হয়। পাঁচজনের একটি বেনিফিসিয়ারি   কমিটি এই প্রকল্পটি পরিচালিত হয় এবং পাম্প চালানোর দায়িত্বে আছে গ্রামেরই বাসিন্দা  বুদ্ধদেব সামন্ত। গতকাল বুদ্ধদেববাবু  বাড়িতে না থাকায় তার স্ত্রী লিপিকা সামন্ত  সজল ধারা প্রকল্প পানীয় জল দেরিতে চালু করায় ওই গ্রামে দাসপাড়ার বাসিন্দারা ওই মহিলাকে গালিগালাজ করে এবং ওই মহিলা পাম্প চালু না করে বাড়ি চলে যায়। যার ফলে পানীয় জল সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। দাস পাড়ার বাসিন্দারা পানীয় জল না পেয়ে ওই প্রকল্প ঘরটি তালা ঝুলিয়ে দেয়। তা নিয়ে মাঝেরপাড়া সঙ্গে দাসপাড়া একটা তিক্ততা বাড়ে । এদিন দুই পাড়ার লোকজন জড়ো হলে উত্তেজনা চরমে পৌঁছায়। ঘটনাস্থলে ভাতার থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি  নিয়ন্ত্রণে আনে এবং জল-সরবরাহ  স্বাভাবিক করে। ভাতার থানার পুলিশ পাঁচজনের কমিটিকে খুব দ্রুত আলাপ-আলোচনা করে যাতে পানীয় জল সরবরাহ বন্ধ না হয় তার নির্দেশ দেয়। এই সজল ধারা প্রকল্প টির পানীয় জল-সরবরাহ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে সমস্যা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দা বাবু দাস ঝুমা দাসেরা।

Post a comment

0 Comments