বেহাল রাস্তা নির্মাণের দাবিতে পথ আটকে গাছের গুঁড়ি ফেলে বিক্ষোভ দেখালেন এলাকাবাসীরা

Subscribe Us

বেহাল রাস্তা নির্মাণের দাবিতে পথ আটকে গাছের গুঁড়ি ফেলে বিক্ষোভ দেখালেন এলাকাবাসীরা



বেহাল রাস্তা নির্মাণের দাবিতে পথ আটকে গাছের গুঁড়ি ফেলে বিক্ষোভ দেখালেন এলাকাবাসীরা। দফায় দফায় এলাকায় ওই অবরোধ চলে।একইসঙ্গে স্থানীয় বিধায়ক এর বিরুদ্ধেও ক্ষোভ জানান বাসিন্দারা। ঘটনাস্থলে বুদবুদ থানার পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। সাথে সাথে ঘটনাস্থলে আসে বিডিও অফিসের প্রতিনিধিদল। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমান জেলার গলসি এক নম্বর ব্লকের তিলডাঁঙ্গা গ্রামে। গ্রামের মোড়ে দীর্ঘক্ষণ অবরোধ করে রাখেন এলাকার বেশকিছু মানুষ। তাদের দাবি দীর্ঘ ১২-১৪ কিলোমিটার রাস্তা সারাইয়ের বরাত পেয়েছে একটি ঠিকা সংস্থা। তবে পাথর বিছিয়ে দেওয়ার পর তাদের গ্রামের কাজটি বহুদিন ধরে বন্ধ রেখেছেন ঠিকাদার। আর এর জেরে নাকাল হাজার হাজার এলাকাবাসী। এই রাস্তায় গাছের গুড়ি ডাল ফেলে রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়। ক্ষোভ জানাতে থাকেন স্থানীয় বাসিন্দারা। বিক্ষোভকারীদের অন্যতম শেখ নজির হোসেন জানান; তিলডাঙ্গা থেকে কসবা এই রাস্তাটি দু বছর আগে অনুমোদন হয়। কিন্তু তার পর দফায় দফায় কাজ বন্ধ রাখেন ঠিকাদার।বেশ কিছুদিন যাবৎ পুরো কাজই বন্ধ। একসাথে এই বিষয়ে তারা বিধায়ককে বারবার জানান।কিন্তু বিধায়ক অলক মাঝি এ নিয়ে কিছুই করেন নি। তার এ ব্যাপারে কোনো ভূমিকাই নেই।তারা রাস্তা বন্ধ করতে চান নি। তারা চান এই দুর্ভোগের অবসান। তবে শেষ অবধি পুলিশ  প্রশাসনের আশ্বাসে অবরোধ উঠে যায়। গলসি ১ নং ব্লকের বিডিও দেবলীনা দাস জানিয়েছেন, তিনি ওই বিষয়ে পি ডাবলু ডি দপ্তরের এক্সিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ারের সাথে কথা বলছেন। পাশাপাশি ঠিকা সংস্থার সাথেও কথা বলেছেন। বর্তমানে ঠিকাদার সংস্থা ওই রাস্তার কসবা পানাগড় এলাকার  কাছাকাছি দুই কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণ করছে। সেই কাজ শেষ হতে আরো দশদিন লাগবে। তারপরই তিলডাঁঙা গ্রামের এলাকায়  কাজ শুরু হবে।।অন্যদিকে পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল সহ-সভাপতি জাকির হোসেন জানিয়েছেন গ্রামবাসীদের ক্ষোভের কারণ আছে। এটা পি ডব্লু ডি র রাস্তা। পাথর ছিটকে বারবার মানুষের গায়ে মাথায় লাগছে। গাড়ি চলে রাস্তার হাল আরো খারাপ হচ্ছে। বি ডি ও বিষয়টি দেখছেন।সব পক্ষকে ডাকা হয়েছে।একটা সুরাহা হয়ে যাবে।

Post a Comment

0 Comments

close