আবার অনুব্রত মন্ডলকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী

Subscribe Us

আবার অনুব্রত মন্ডলকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী



গত বেশ কিছুদিন ধরেই তিনি অনুব্রত মন্ডলের বিরুদ্ধে দফায় দফায় সরব হচ্ছেন।আজ আবার নিজের ক্ষোভ উগরে দিলেন মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী। পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোট কেন্দ্রের বিধায়ক এবং মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী। ঐ এলাকা সহ আউশগ্রাম ও কেতুগ্রামের সাংগঠনিক দায়িত্ব আবার বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডলের দায়িত্বে।  এর আগে তিনি ওই তিনটি এলাকার দলের পর্যবেক্ষক ছিলেন।কিছুদিন আগে দলের পর্যবেক্ষক পদের বিলোপ ঘটলেও অনুব্রতই দায়িত্বে রয়ে গেছেন।এই নিয়েই মূলত ক্ষুদ্ধ মন্ত্রী।এর আগে একাধিকবার তিনি অনুব্রতের আন্ডারে কাজ করতে অরাজি তা সোজাসুজিই বলেছেন সিদ্দিকুল্লাহ।আজ এক কর্মসূচি থেকে ফেরার পথে বর্ধমান সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মন্ত্রী। তিনি এদিন বলেন, বীরভূমের গরম হাওয়া বর্ধমানে ঢুকুক তা তিনি চান না। তিনি আরো বলেন , তিনি ইচ্ছে করলেই মঙ্গলকোটে বড়বড় মিছিল করতে পারেন।কিন্তু উনি দলের শৃঙখলাবদ্ধ কর্মী।তিনি দলের নিয়ম মেনে চলেন।এদিন তিনি আরো জানান, তিনবছর আগে বোলপুর গেষ্ট হাউসে একটি বৈঠকে সমাধানসূত্র খোঁজার চেষ্টা হয়।সেখানে সুব্রত বক্সী উপস্থিত ছিলেন।অনুব্রতসহ ছজন ছিলেন।সেখানে সুব্রত বক্সী সবাইকে মিলেমিশে কাজ করার কথাই বলেছিলেন।কিন্তু ওরা ওসব মানেনি।দফায় দফায় ঝামেলা করছে।মারধোর করছে।হুমকি দিচ্ছে।বাংলা আবাস যোজনায় অনেকেই ঘর পাচ্ছেন না।তারা আমাকে অভিযোগ করতে এলে তাদের শাসানো হচ্ছে।এর আগেও তিনি একবার অভিযোগ করেছিলেন বালিখাদ থেকে অনুব্রত বড়লোক হচ্ছেন।সরকার রেভিনিউ পাচ্ছেনা। তিনি বলেন এতে দলের ক্ষতি হচ্ছে। মমতা ব্যানার্জি মানুষের স্বার্থে অনেক কাজ করছেন।তার সুফল মানুষ পাচ্ছেন না।

Post a comment

0 Comments