সারা দেশের সাথে বর্ধমানেও শুরু হল করোনা টিকাকরণ কর্মসূচি

Subscribe Us

সারা দেশের সাথে বর্ধমানেও শুরু হল করোনা টিকাকরণ কর্মসূচি





শনিবার বর্ধমানেও কোভিড ভ্যাক্সিন দেবার কাজ শুরু হল ।এদিন মোট ৭ টি কেন্দ্রে এই ভ্যাক্সিন দেওয়া হচ্ছে।হাসপাতালের সাফাই কর্মী সঞ্চয় মাঝিকে প্রথম ভ্যাক্সিন দেওয়া হয়। ভ্যাক্সিন  দেওয়ার দেবার সময় চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা হাততালি দিয়ে তাঁকে অভিবাধন জানান।  বর্ধমান মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ সুহৃতা পাল বলেন প্রশাসনিক স্তরে সব প্রস্তুতি নেওয়া আছে। যদি কেউ ভ্যাক্সিন নেবার পর অসুস্থ বোধ করেন তাঁর জন্য সমস্ত রকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ভ্যক্সিন দেওয়ার আগে গ্রহীতাকে প্রথমে ওয়েটিং রুমে বসিয়ে নাম নথিভুক্ত করা হয়।তারপর সব রকম ভাবে ব্যবস্থা নেওয়ার পর তাঁকে ভ্যাক্সিন প্রয়োগ করা হয়।ভ্যাক্সিন দেওয়ার পর আধঘন্টা তাঁকে বসিয়ে রাখা হয়।এরমধ্যে তাঁর কোন শারীরিক সমস্যা হচ্ছে কি না তা লক্ষ্য করা হয়  
এদিন বর্ধমান মেডিকেল কলেজকে সাজানো হয় ফুল দিয়ে। কলেজের মূল গেট সহ বিভিন্ন জায়গায় ফুলের তোরণ করা হয়। প্রশিক্ষণ সহ সব ব্যবস্থা হয়ে গেছে।গতকালই শেষ মুহূর্তের সব ব্যবস্থা খতিয়ে দেখতে বর্ধমান মেডিকেল কলেজে যান প্রশাসনের শীর্ষকর্তারা। উপস্থিত ছিলেন  জেলাশাসক এনাউর রহমান ; সভাধিপতি শম্পা ধারা; জেলা পুলিশসুপার ভাস্কর মুখার্জি সহ স্বাস্থ্য দপ্তরের আধিকারিকরা।
প্রতি পর্যায়ে ১০০ জনকে টিকা দেওয়া হবে। মোট ৩১৫০০ জনকে পূর্ব বর্ধমান জেলায় ভ্যাক্সিন দেওয়া হবে।এদিন প্রথম পর্যায়ের কাজ শুরু হল।বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ছাড়াও  ভ্যাক্সিন দেওয়া হল সেগুলি হল; বর্ধমান পৌরসভার ঝুরঝুরেপুল স্বাস্থ্যকেন্দ্র; ভাতার; কালনা ; কাটোয়া;পূর্বস্থলী ও মেমারি।কলেজের অধ্যক্ষ  জানান;স্বাস্থ্যদপ্তরের গাইডলাইন মেনেই ভ্যাক্সিনের কাজ করা হয়েছে।।প্রথমদিন জেলার ৭ টি কেন্দ্রে ভ্যাক্সিন দেওয়া হয়। 
বুধবার বর্ধমানে এসে পৌঁছায় কোভিড ভ্যাক্সিন।ইনসুলেটেড ভ্যানের কনভয় এই ভ্যাকসিন পৌঁছে দেয়।  প্রতিদিন ১০০ জনকে এই ভ্যাক্সিন দেওয়া হবে। জেলায় মোট ৩১৫০০ জনকে প্রথম দফায় টিকাকরণ করা হবে। প্রথম পর্যায়ে স্বাস্থ্যকর্মী সহ কোভিড ওয়ারিয়রদের এই ভ্যাক্সিন দেওয়া হবে।নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় সংরক্ষিত রাখা হয়েছে ভ্যাকসিন।  যিনি ভ্যাকসিন নিচ্ছেন আসার পর তাঁকে সেন্টার থেকে হাতে স্যানিটাইজার দেওয়া হয়। তারপর তাঁর নাম যাচাই করে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। ভ্যাকসিন দেওয়ার পর তাঁকে পাশের ওয়েটিং রুমে পাঠানো হয়। সেখানে তাঁকে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করতে বলা হয়। যদি ভ্যাক্সিন নেওয়ার পর আধঘন্টা কোন সমস্যা না হয়, তখন তিনি বেড়িয়ে যেতে পারেন।  ওয়েটিং রুমে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখা সহ কোভিড বিধি মেনে চলা হয়।

Post a comment

0 Comments