মালদা থেকে চার কিডন্যাপারেকে গ্রেপ্তার করল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ

Subscribe Us

মালদা থেকে চার কিডন্যাপারেকে গ্রেপ্তার করল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ



নিঁখোজ কোম্পানির এক্সিকিউটিভের তদন্তে নেমে মালদা থেকে চার কিডন্যাপারেকে গ্রেপ্তার করল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ।ঘটনাটি সম্পর্কে চাঞ্চল্যকর বিবরণ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কল্যাণ সিংহ রায়। তিনি জানান ; বৃহস্পতিবার বর্ধমান থানার পুলিশ একটি অভিযোগ পায়। গত ২৭ তারিখ রাত সাড়ে আটটার পর থেকে ভোল্টাস কোম্পানির এরিয়া ম্যানেজার সুজিত কুমার চক্রবর্তী নিঁখোজ। একেবারে জলজ্যান্ত মানুষ নিপাত্তা হয়ে গেছেন।বৃহস্পতিবার কোম্পনির প্রজেক্ট ম্যানেজার দুটি থ্রেট কল পান। তাতে ১ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। সময়সীমা বেধে দেওয়া হয়।বর্ধমান থানা তৎপর ছিলই। জেলা পুলিশ একটি টিম গঠন করে। মোবাইল টাওয়ার লোকেশন দেখে মালদা জেলা  পুলিশের সাহায্য নেওয়া হয়।  গতকাল দুপুরে মালদার ইংরেজবাজার থানার একটি হোটেল থেকে সুজিত কুমার চক্রবর্তীকে উদ্ধার করা হয়। তিনি বর্তমানে ঘটনার ঘোরে রয়েছেন। ট্রমাও কাটাতে পারেননি।পাকড়াও করা হয় চার দুস্কৃতীকেও। ওই কিডন্যাপারদের দুজনের বাড়ি পুকুরিয়া থানায়।বাকি দুজনের বাড়ি মাণিকচক থানায়।এদের সবাইকে বর্ধমানে নিয়ে আসা হচ্ছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান; পুলিশ এই ঘটনার বিস্তারিত তদন্ত করবে।ধৃতদের মোডাস অপারেন্ডি খতিয়ে দেখা হবে।এর আগে কোনো অপরাধে তারা জড়িয়ে ছিল কী না তা ও দেখা হবে।জানা গেছে সেদিন রাত সাড়ে আটটায় সুজিত বাবুর শেষ লোকেশন ছিল নবাবহাট।কোম্পানির ড্রাইভার সেখানে তাকে নামিয়ে দেয়। তারপর কীভাবে কী ঘটল তা দেখা হবে।ঘোর কাটলে পুলিশ কথা বলবে সুজিতবাবুর সাথেও।

Post a comment

0 Comments