তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবসে বার্তা মমতার

Subscribe Us

তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবসে বার্তা মমতার

 



ওয়েব ডেস্ক:- ১৯৯৮ সালের পয়লা জানুয়ারি কংগ্রেস ছেড়ে বেরিয়ে নতুন দল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২৩ পেরিয়ে ২৪-এ পা দিল তৃণমূল। সেই উপলক্ষে সকালে পরপর দু'টি ট্যুইটে রাজ্যবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দলের প্রতিষ্ঠাতা-সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। টুইটে তাঁর পোস্ট, "তৃণমূল ২৩ বছর পূর্ণ করার মুহূর্তে ১৯৯৮ সালে ১ জানুয়ারি আমাদের পথচলার দিনের কথা মনে পড়ছে। অপরিসীম সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে কেটেছে এতগুলি বছর। কিন্তু, এই সময় ধরে আমরা মানুষের হয়ে সোচ্চার হওয়ার উদ্দেশ্যে ব্রতী থাকতে পেরেছি। তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবসে আমি মা-মাটি-মানুষ ও তৃণমূলের সকল কর্মীদের আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা জানাই। তৃণমূল পরিবার আগামী দিনেও একই লক্ষ্যে এগিয়ে যাবে।" এই বছরে এই দিনটিকে 'জাতীয় নাগরিক দিবস' হিসেবে পালন করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যজুড়ে সমস্ত বুথে বুথে দলের জন্মদিনের পাশাপাশি নাগরিক দিবস পালনের কথা তিনি সকলকে জানিয়ে দিয়েছেন।তৃণমূল ভবনে সভাপতি সুব্রত বক্সি পতাকা উত্তোলন করেছেন। ছিলেন রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও'ব্রায়েন এবং শান্তনু সেন। পাশাপাশি স্পষ্টভাবে তৃণমূল সভাপতি জানিয়েছেন নাগরিক সংশোধনী আইনের বিরোধীতা তাঁরা চালিয়ে যাবেন। ২০২১ সালে পুরসভা নির্বাচনের জন্য এনআরসি এবং সিএএ-কে হাতিয়ার করেই এগোবে তৃণমূল কংগ্রেস। বক্সি বলেন, '২০২১ সালের নির্বাচন নিয়ে আমরা ভীত নই। কিন্তু এই নির্বাচন তাত্পর্যপূর্ণ। কারণ, বাংলার মাটিতে দাঁড়িয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে রেখে বাংলার মানুষকে সংঘবদ্ধ করে সংবিধান বাঁচানো রক্ষার দায়িত্বে নেমেছি। ভারতবর্ষের সংবিধানকে ধ্বংসের যে প্ৰচেষ্টা চলছে, তার বিরুদ্ধেই লড়াই আমাদের।'  

Post a Comment

0 Comments

close