ঘুরতে গিয়েও কি জ্বালা !

Subscribe Us

ঘুরতে গিয়েও কি জ্বালা !



 

নিজস্ব সংবাদদাতা :-  দুবাইয়ে গিয়েও ট্রোল সংস্কৃতির জ্বালা এড়াতে পারলেন না মিমি চক্রবর্তী।বালুকাবেলায় ছবি পোস্ট করেছিলেন অভিনেত্রী-সাংসদ। তাতেই কটাক্ষ শুনতে হল তাঁকে। সাংসদ হয়ে দুবাইয়ে বেড়ানোর ‘অপরাধে’ নেটিজেনদের বিদ্রূপের শিকার হতে হল তাঁকে।সারা বছর কাজের ব্যস্ততা থাকলেও বছরের শেষ কিংবা শুরুর শীতে বাঙালি একটু তল্পিতল্পা গুটিয়ে বেড়িয়ে পড়তেই ভালবাসে। ব্যতিক্রম নন মিমি চক্রবর্তীও। দুবাই ঘুরতে গিয়ে মরুভূমি থেকে ছবি ও ভিডিও পোস্ট করেছিলেন অভিনেত্রী তথা যাদবপুর কেন্দ্রের তৃণমূল সাংসদ। অনেকেই সে ছবি দেখে মুগ্ধ হয়েছেন। তবে একটি প্রোফাইল থেকে তা নিয়ে আপত্তি জানানো হয়েছে। মিমির ছবির কমেন্ট বক্সে লেখা হয়েছে, “আপনি সাংসদ? একদমই না… এমন এক সাংসদ যাঁর মানুষের জন্য কাজ করার কথা তিনি নাকি দুবাইয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন… বাহ!” উল্লেখ্য, নেটদুনিয়ায় ট্রোলের সংস্কৃতি নতুন নয়। অভিনেতা, অভিনেত্রী থেকে রাজনীতিবিদ, প্রত্যেককে এর মুখোমুখি হতে হয়েছে। বিশেষ করে মিমি চক্রবর্তীর মতো যাঁরা বিনোদন পেশা থেকে রাজনীতির জগতে গিয়েছে। সাংসদ হলে কি বেড়াতে যাওয়া যায় না? ক্ষণিকের অবসর নেওয়া যায় না? এই প্রশ্নও তুলেছেন অনেকে। অবশ্য ট্রোলের ফাঁদে না পড়ে এড়িয়ে যেতেই পছন্দ করেন মিমি।নিজের কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকতে ভালবাসেন তিনি। কিছুদিন আগেই প্রকাশ্যে এসেছিল মিমির দ্বিতীয় রবীন্দ্রসংগীত ‘তোমার খোলা হাওয়া’। মৌসুনি দ্বীপে মিউজিক ভিডিওর শুটিং করেছিলেন মিমি।পাশাপাশি, মৌসুনি দ্বীপে পর্যটনকে উৎসাহ দিয়ে একটি ভিডিও’ও আপলোড করেছিলেন।দুবাইয়ে মিমির নতুন ছবি ও ভিডিও দেখে একাংশের অনুমান, আবার হয়তো কোনও নতুন মিউজিক ভিডিও উপহার দিতে চলেছেন তারকা সাংসদ।

Post a Comment

0 Comments

close