'টুম্পা সোনা' গানের প্যারডি করে প্রচারে নেমেছ সি পি আই এম, শুরু হয়েছে বিতর্ক

Subscribe Us

'টুম্পা সোনা' গানের প্যারডি করে প্রচারে নেমেছ সি পি আই এম, শুরু হয়েছে বিতর্ক



মাও সে তুং বলেছিলেন ;" বেড়ালের রঙ যাই হোক; সে ইঁদুর ধরতে পারে কী না সেটাই বড় কথা।'ইতিমধ্যে ভাইরাল হয়ে যাওয়া ' টুম্পা সোনা ' গানের প্যারডি করে সমাজ মাধ্যমে প্রচারে নেমেছ সি পি আই এম। এই নিয়ে ঘনিয়েছে বিতর্ক।এর মধ্যে আবার পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর ব্লকের শুড়েকালনা বাজারে টুম্পাকে নিয়ে দেওয়াললিখন নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। আজ সকালে শুড়েকালনা বাজারে ওই দেওয়াললিখন দেখা যায়।তাতে লেখা ' চলো টুম্পা সোনা; ২৮ শে ব্রিগেড চলো।'।তার পাশে অবশ্য লেখা আছে 'আমরা চাই নারী সুরক্ষা ;কর্মসংস্থান ; কৃষি আইন বাতিল করো।' জামালপুরের সি পি আই এম নেতারা এ নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া দেননি। তাদের বক্তব্য ;যা বলার জেলা নেতারা বলবেন।


সি পি আই এমের জেলা কমিটির সদস্য দীপঙ্কর দে জানান; '  ' আমাদের প্রচার; গান বা পোস্টারে অরুচিসম্মত কিছু নেই। যা বলা আছে তৃণমূল ও বিজেপির বিরুদ্ধে। তাই ওদের গায়ে লাগছে।'।কিন্তু তৃণমূল বা বিজেপি এই নিয়ে সি পি আই এমকে বিদ্ধ করতে ছাড়েনি। তৃণমূল কংগ্রেসের যুব সভাপতি তথা পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ ভূতনাথ  মালিক বলেন; ' সি পি এমের করুণ অবস্থা আরো প্রকট হল। ওদের জামালপুর কেন কোথাও পায়ের নিচে মাটি নেই। তাই চটকদারি প্রচার করে ব্রিগেডে লোক টানার এই চেষ্টা। ' অন্যদিকে বিজেপি জামালপুরের কনভেনর জিতেন দকালের অভিযোগ ; ' এটা বাংলার সংস্কৃতির পরিপন্থী।সিপিএম চৌত্রিশ বছর ক্ষমতায় ছিল। তাদের গণমাধ্যম ছিল; আন্দোলন ছিল। আজ টুম্পা সোনা গানকে হাতিয়ার করেছে। আবার পোস্টার লিখে ব্রিগেড যাবার ডাকও দিচ্ছে।ওরা বুঝে গেছে ক্ষমতায় ফিরবে না।তবে এটা ওদের দলের ব্যাপার। ওরা যদি টুম্পা সোনাকে কাজে লাগায় সেটা ওদের ব্যাপার। ' কিন্তু কী বলছেন সাধারণ মানুষ? তারা মজাই পেয়েছেন।শুধু দেওয়ালে লেখাই নেই টুম্পার ছবি ও আছে। অনেকেই দেখছেন। তাতে অবশ্য ব্রিগেডে লোক টানা যাবে কী না তা ভিন্ন কথা!

Post a Comment

0 Comments

close