সংসারের হাল ধরতে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে মিষ্টি বিক্রি সপ্তম শ্রেণির ছাত্রের

Subscribe Us

সংসারের হাল ধরতে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে মিষ্টি বিক্রি সপ্তম শ্রেণির ছাত্রের


কত মানুষ কত ভাবে লড়াই করে। হার না মেনে জীবনের পথ খুঁজে নেয় বর্ধমান ২ ব্লকের খাঁড়্গ্রামের ছাত্র সুমন ঘোষ  মিষ্টি বিক্রি করে সংসার চালায়।মিষ্টি বিক্রি করলেও তার জীবনটা মোটেই মসৃণ নয়। বাবা অসুস্থ। সংসারে রোজগেরে আর কেউ নেই। তাই, সংসারের হাল ধরতে সাইকেলে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে মিষ্টি বিক্রি করে সপ্তম শ্রেণির ছাত্র সুমন ঘোষ। এখন তার পড়াশুনা ও খেলাধূলো করার কথা। কিন্তু, সংসারের হাল ধরতে সে  মিষ্টি বিক্রি করে বেড়ায়। খাঁড়গ্রামের ঘোষপাড়ায় বাড়ি বছর তেরোর সুমনের। সে খাঁড়গ্রাম জুনিয়র হাইস্কুলে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ে। বছর দু’য়েক আগে তার বাবা অসুস্থ হয়ে পড়েন। হাই ব্লাড সুগারে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। কর্মক্ষমতা প্রায় হারিয়েছে  তার। 
একমাত্র উপায়কারীর রোজগার বন্ধ হওয়ায় সংসারে অভাব দেখা দেয়। সংসারের হাল ধরতে এগিয়ে আসে সুমন। এই ছোট্ট বয়সে রাস্তায় ঘুরে ঘুরে রসগোল্লা বিক্রি করতে শুরু করে সে। তার বিক্রি করা রসগোল্লার খদ্দেরও রয়েছে যথেষ্ট। সাইকেলে চেপে এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রাম ঘুরে সে রসগোল্লা বিক্রি করে। নিজের পড়াশুনার খরচ জোগারের পাশাপাশি সংসারের আর্থিক অনটন ঘোচাতে তার লড়াই। পাড়ায় পাড়ায় বিক্রির পাশাপাশি সুমনকে খোঁজ রাখতে হয় কোথাও মেলা বা অনুষ্ঠান হচ্ছে কী না। রসগোল্লা নিয়ে সেখানে চলে যায় সে।বিক্রিবাটা ভালোই হয়। রসগোল্লা বিক্রি করে ঘরে ফিরে খাওয়া-দাওয়া করে পড়াশুনায় বসে সে। একজন গৃহশিক্ষক আছেন। বাবাও  পড়া দেখিয়ে দেন। সুমন জানিয়েছে; এভাবে না চেষ্টা করলে সংসার অচল হয়ে যাবে। পড়াও হবে না।সুমনের এই অসম যুদ্ধকে সম্মান জানায় তার চেনা জানা মানুষেরাও।

Post a comment

0 Comments