Subscribe Us

দলের মহিলা কর্মীদের নিয়ে গুসকরা শহরের বিদ্যাসাগর হলে বৈঠক করলেন অনুব্রত মণ্ডল



নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিকই বলেছেন।আমরা ১৯৯৮ সালে  দলের জন্মলগ্ন থেকে পার্টি করছি।আর অধিকারী পরিবার তৃণমূলে এসেছে ২০০২ সালে।তার আগে ওরা দলে আসেনি,বলে মন্তব্য করলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। মুখ্যমন্ত্রী নন্দীগ্রাম গণহত্যা প্রসঙ্গে বলেছেন অধিকারী পরিবারের মদতেই তখন পুলিশ নন্দীগ্রামে ঢুকতে পেরেছিল। এই প্রসঙ্গে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, মুখ্যমন্ত্রী যা বলেছেন, ঠিক বলেছেন। 
মঙ্গলবার বিকেলে দলের মহিলা কর্মীদের চাঙ্গা করতে গুসকরা শহরের বিদ্যাসাগর হলে মহিলাদের নিয়ে কর্মী বৈঠকের আয়োজন করা হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা আউশগ্রাম বিধানসভার দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা অনুব্রত মণ্ডল।এদিন রুদ্ধদ্বার কর্মী বৈঠক হয়। অনুব্রত মণ্ডল দলের মহিলা কর্মীদের কাছে আহ্বান জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলির কথা তুলে ধরে বাড়ি বাড়ি প্রচার করতে। বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন প্রকল্পের কথা তুলে ধরার নির্দেশ দেন কেষ্ট।  তিনি কর্মী বৈঠকে বলেন, এই সরকার না থাকলে বাংলায় জনমুখী প্রকল্পগুলিও থাকবে না।সব প্রকল্প বন্ধ হয়ে যাবে।
প্রথম দফার ভোটের পর, অমিত শাহ দাবি করেছেন ৩০ টি আসনের মধ্যে বিজেপি ২৬ আসনে জয়ী হবে। অমিত শাহের মন্তব্যের জবাবে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, ও পাগলের মতো কথা বলছে।

Post a Comment

0 Comments