Subscribe Us

নন্দীগ্রামে মনোনয়ন মমতার



নীলবাড়ির লড়াইয়ে নন্দীগ্রামে এ বার গুরু-শিষ্যের লড়াই। তৃণমূলের তরফে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেখানে প্রার্থী হয়েছেন। আর তাঁকে টক্কর দিতে বিজেপি সেখানে নামিয়েছে তাঁরই একসময়কার শিষ্য শুভেন্দু অধিকারীকে।মমতার কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে একসময় নন্দীগ্রামের জমি আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন তিনি। কিন্তু দলনেত্রীর সঙ্গ ছেডে় গতবছরের শেষ দিকে পদ্মশিবিরে নাম লিখিয়েছেন।বুধবার মমতা এবং শুভেন্দু, দু’জনেই নন্দীগ্রামে রয়েছেন।মমতা যদিও এক দিন আগেই পৌঁছে গিয়েছিলেন। মঙ্গলবার দুপুরে দলের কর্মিসভায় বক্তৃতা করার পর একাধিক মন্দিরে দর্শন সারেন তিনি। কথা বলেন সাধারণ মানুষের সঙ্গে। তার পর বুধবার দুপুর পৌনে ১টা নাগাদ সেখানকার অস্থায়ী বাসস্থান থেকে মনোনয়ন জমা দেওয়ার জন্য বেরিয়ে পড়েন।হলদিয়ার মহকুমাশাসকের অফিসে দুপুর ২টো নাগাদ মনোনয়ন পেশ করেন তিনি। মনোনয়ন পেশের আগে নন্দীগ্রামের রেয়াপাড়া শিব মন্দিরে পুজো দেন তৃণমূলসুপ্রিমো। তারপরই কপ্টারে চড়ে পৌঁছন হলদিয়ায়।সেখানে কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে রীতিমতো রোড শো করে মহাকুমা শাসকের দপ্তরে যান মমতা। মহকুমা শাসকের দপ্তরে তাঁর সঙ্গে যান সুব্রত বক্সী।তখন বাইরে ছিলেন অজস্র কর্মীসমর্থকরা। চলছিল ‘খেলা হবে’ স্লোগান। মহকুমা শাসকের দপ্তরে ঢুকেই মনোনয়নপত্রে সই করে জমা দেন তৃণমূলনেত্রী।মহকুমা শাসকের দপ্তর থেকে বেরিয়ে এসে তিনি সমস্ত কর্মী-সমর্থকদের ধন্যবাদ জানান জানিয়ে বলেন, ‘নন্দীগ্রাম আমার কাছে নতুন জায়গা নয়’।

Post a Comment

0 Comments