Subscribe Us

ক্ষতিপূরণের দাবিতে কারখানার গেটে অবস্থান বিক্ষোভে মৃত শ্রমিকের পরিবার


সুজিত ভট্টাচার্য,দুর্গাপুর:-দুর্গাপুরের শিল্পাঞ্চলে শ্রমিক বিক্ষোভে উত্তপ্ত গোটা এলাকা। রঘুনাথ সিং (৪৭) মঙ্গলবার দুর্গাপুরের কোকোভেন থানার অন্তর্গত সাগরভাঙ্গায় একটি প্রাইভেট স্পঞ্জ আয়রন কারখানায় মারা যান। এর দুদিন পরেও কারখানার কর্তৃপক্ষ নিহতের পরিবারকে জানায়নি বলে অভিযোগ।দুর্গাপুর ই .এস.আই.  হাসপাতাল  থেকে ময়না তদন্তে নিয়ে যাওয়ার আগে উত্তরপ্রদেশের বালিয়রে রঘুনাথ সিংয়ের বাড়ীতে খবর দেওয়া হয়। এরপর  উত্তরপ্রদেশের কৃষি মন্ত্রী রাধামোহন সিংয়ের সাহায্য নিয়ে বাংলায় আসে মৃত শ্রমিকের পরিবার, দুর্গাপুর পৌঁছে মৃত শ্রমিকের পরিবার আটকে দেয় রঘুনাথ সিংয়ের মৃতদেহ, বাধা দেয় ময়না তদন্তে নিয়ে যেতে।রঘুনাথ সিংহের দাদা রাজেন্দ্র কুমার সিং অভিযোগ করেন যে দুর্গাপুরের কোকোভেন থানার পুলিশ কোনও অভিযোগ নিচ্ছে না এবং কারখানা কর্তৃপক্ষ সহযোগিতা করছে না। পরিবার পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে যে কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশ মৃত শ্রমিকের মৃত্যুর কারণ ঘোষণা না করা এবং ক্ষতিপূরণ না দেওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবে। প্রয়োজনে ময়নাতদন্ত না করে দেহটি কারখানার গেটের সামনে রেখে দেওয়া হবে।  
এদিকে, বিজেপি জেলা নেতৃত্ব মৃত শ্রমিকের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে শ্রমিকের মৃত্যুর কারণ জানবার দাবি করে কারখানার গেটের সামনে বসেপড়ে। বিজেপি পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি লক্ষ্মণ ঘড়ুই অভিযোগ করেছেন যে এর পেছনে পুলিশ কারখানা কর্তৃপক্ষ আর তার পেছনে তৃণমূল নেতারা রয়েছেন, মৃত শ্রমিকের ক্ষতিপূরণের টাকার কাটমানি খেয়ে তৃণমূল ভোটের খরচা তোলার জন্য এই কাজ করছে, তাই এই ইস্যুতে তারা প্রয়োজনে ভয়ঙ্কর আন্দোলন শুরু করবে। গোটা ঘটনায় দুর্গাপুরের সগড়ভাঙ্গায় ঐ বেসরকারী কারখানার সামনে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে।

Post a Comment

0 Comments