পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের জনসভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যাকে একহাত নিলেন দিলীপ ঘোষ

Subscribe Us

পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের জনসভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যাকে একহাত নিলেন দিলীপ ঘোষ


পূর্ব বর্ধমানের  ভাতারের সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যাকে নিশানা করে দিলীপ ঘোষ বলেন," দিদি বলেছিল খেলা হবে।আমরা ভেবেছিলাম কি না কি খেলা হবে। এখন বলছে হুইল চেয়ার ঠ্যালা হবে।"করোনা পরিস্থিতির কারণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাকি চারদফা ভোট একই দিনে শেষ করার দাবি তুলেছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর এই দাবিকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি দিলীপ ঘোষ। রবিবার পূর্ব বর্ধমানের  ভাতারের নবাব নগরে বিজেপি প্রার্থী মহেন্দ্রনাথ কোঁয়ারের সমর্থনে জনসভায় আসেন দিলীপ ঘোষ। তিনি  বলেন," দিদি বলছে একসঙ্গে ভোট করে নাও। পালিয়ে যাবে।কিন্তু দিদি গোল খেয়ে গিয়েছে। ম্যাচ শেষ হতে  বাকি আছে।আমরা বলছি ফুলটাইম খেলা হবে।যতক্ষণ না ম্যাচ শেষ হচ্ছে ছাড়বো না।"দিলীপ ঘোষ বলেন," দিদিমণি হাওয়াই চপ্পল আর সাদা শাড়ি আমাদের অনেক বোকা বানিয়ে এসেছে।আর সাদা শাড়ি নয়, এবার সাদা দাড়ি চলবে । সাদা শাড়ির দিন শেষ। সাদা দাড়ির দিন এসেছে।সাদা দাড়ি এবার সোনার বাংলা গড়বে।"দিলীপ ঘোষ রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন," আর সিভিক পুলিশ দিয়ে থানা চলবে না।ভোট এলে বাংলার মানুষ চিন্তায় থাকেন। আমি কথা দিচ্ছি, বিজেপি ক্ষমতায় এলে আর সেন্ট্রাল ফোর্স লাগবে না।এই পশ্চিমবঙ্গের পুলিশ ভোট নিয়ন্ত্রণ করবে।পুলিশ নিরপেক্ষ ভোট করবে।পুলিশের মেরুদণ্ড আমরা সোজা করে দেবো।"ভাতারের সভার আগে পূর্ব বর্ধমান জেলার আউশগ্রাম, পূর্বস্থলী এবং মঙ্গলকোটে দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে রোড শো করেন দিলীপ ঘোষ।এদিন প্রথমে আউশগ্রামের গুসকরায় দলীয় প্রার্থী কলিতা মাজির সমর্থনে রোড শো করেন দিলীপ ঘোষ। গুসকয়ায় রটন্তী কালী মন্দিরে পুজো দেন। তারপর পূর্বস্থলী দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী রাজীব ভৌমিকের সমর্থনে রোড শো করেন।  দুপুরে নিমতলা ফুটবল ময়দান থেকে রোড শো শুরু হয়।  নান্দাই ব্রিজ পর্যন্ত রোড শো হয়। তারপর মঙ্গলকোটে দলীয় প্রার্থী রাণাপ্রতাপ গোস্বামীর প্রচার মিছিলে যান।

Post a comment

0 Comments