মেমারিতে তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার পাঁচ জন

Subscribe Us

মেমারিতে তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার পাঁচ জন



গত শনিবার মেমারি বিধানসভার নওহাটি গ্রামে তৃণমূল আর বিজেপি কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। সেই ঘটনার জেরে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বিজেপির দাবি, তৃণমূলের কাউকে ধরা হয়নি। গতকাল কুচূট এলাকার নওহাটি গ্রামে প্রচারে যান মেমারি বিধানসভার  বিজেপি প্রার্থী ভীস্মদেব ভট্টাচার্য। তৃণমুলের দাবি তাদের কোনো অনুমতি ছিল না। তারা পুলিশিকে জানান সেকথা। তবু প্রচার চলাকালীন দুপক্ষের ধুন্ধুমার সংঘর্ষ চলে দফায় দফায়।  বিজেপির অভিযোগ, তাদের রাস্তা আটকে শাসকদল ঝামেলা সৃষ্টি করে। তাদের সমর্থকদের মারধর করা হয়। তাদের বাড়িতেও হামলা করে তৃণমূল কংগ্রেসের  লোকেরা। 
অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি ছিল, বাইরে থেকে সশস্ত্র দুস্কৃতীদের নিয়ে এসে বিজেপি হামলা চালায় তাদের কর্মীদের উপর।  তাদের সমর্থকদের বাড়ি ও বাইক ভাঙচুর করা হয়। দুপক্ষেরই অভিযোগ,  অপরপক্ষ মহিলদেরও ছেড়ে কথা বলেনি। পুলিশও প্রথমদিকে ব্যবস্থা নেয়নি বলে গতকাল অভিযোগ করেছিলেন শাসকদলের নেতা মহঃ ইসমাইল। 
এই ঘটনার নিয়ন্ত্রণ আনতে পরে আরো পুলিশ আসে ।  পুলিশের গাড়িতেও হামলার অভিযোগ ওঠে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে কয়েকজন পুলিশকর্মী আহত হন। সেই ঘটনার জেরেই পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।এরা বিজেপির স্থানীয় নেতা ও কর্মী বলে বিজেপির দাবি।
অন্যদিকে তৃণমূলের দাবি,  বিজেপি গতকাল বিনা অনুমতিতে গ্রামে ঢুকে ঝামেলা করে। আমাদের নেতা কর্মীদের বাড়ি ও গাড়িতে ভাঙচুর করে। এমনকি ওদের সাথে সশস্ত্র বহিরাগত ব্যক্তিরা ছিল বলে তার দাবি৷মেমারি বিধানসভার  তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী মধুসূদন ভট্টাচার্য জানান, বিজেপি প্রার্থী ভীস্মদেব ভট্টাচার্য গ্রামে গ্রামে প্ররোচনা সৃষ্টি করছেন। বিজেপি চাইছে ভোটারদের ভয় দেখাতে। যাতে মানুষ ভোট দিতে ভয় পায়। পরাজয় সুনিশ্চিত জেনেই ওরা একাজ করছে।' বিজেপি মহিলা মোর্চার নেত্রী স্মৃতিকণা বসুর পালটা দাবি; ' আমাদের প্রার্থী  ও কর্মীরা প্রচারে গিয়ে ছিলেন নওহাটি গ্রামে। শাসকদলের লোকেরা তাদের মারধর করে।আমাদের কর্মীদের বাড়ি ভাঙা হয়। উলটে পুলিশ বিজেপিরই পাঁচজন নেতা কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে। দেখা করতে আসে বা চিকিৎসাধীন ব্যক্তিকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আমরা যথাযথ জায়গায়  অভিযোগ জানিয়েছি। ' তিনি আরো দাবি করেন শাসকদলের তরফে হামলা করেছিল যারা তাদের কাউকেই গ্রেফতার করা হয়নি। তারা এর প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। 

Post a comment

0 Comments