একদিকে তীব্র দাবদহ, অন্যদিকে জলকষ্ট দুই এর সাঁড়াসি আক্রমণে নাভিশ্বাস উঠেছে বাঁকুড়া জেলাবাসীর

Subscribe Us

একদিকে তীব্র দাবদহ, অন্যদিকে জলকষ্ট দুই এর সাঁড়াসি আক্রমণে নাভিশ্বাস উঠেছে বাঁকুড়া জেলাবাসীর



প্রতিদিনই কোন না কোন ওয়ার্ড থেকে জলের অভাবে আন্দোলন উঠে আসছে। আজ বাঁকুড়া পৌরসভার তেরো নাম্বার ওয়ার্ডের লোকপুর এলাকায় হাঁড়ি কলসি কলের সামনে রেখে বিক্ষোভ আন্দোলনে সামিল হন এলাকার মহিলারা। তাদের দাবি মাত্র আধ ঘন্টার জল সরবরাহ করা হচ্ছে। তার মধ্যে খুব বেশি হলে দুই থেকে তিনটি পাত্রে জল ভরছে। এতে কি করে সংসার চলবে।এই সামান্য জলে কিভাবে পানীয় জল সহ রান্নাবান্না ও গৃহস্থলীর কাজের করা সম্ভব। এলাকার থাকা টিউবওয়েল তাও খারাপ হয়ে পড়ে রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে। বারবার কাউন্সিলরকে জানিয়েও কোনো কাজ হয়নি বলেই দাবি এলাকার বাসিন্দাদের।
আর এই তীব্র কষ্ট নিয়েও রাজনৈতিক চাপানোর শুরু হয়ে গেছে জেলাজুড়ে। আজ বাঁকুড়ার ভৈরবস্থান মোড় এলাকায় প্রতীকী অবরোধ কর্মসূচি পালন করে জেলা বিজেপি। বাঁকুড়া বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ও বিজেপির জেলা সহ সভাপতি, প্রাক্তন কাউন্সিলার নেতৃত্বে পৌর এলাকায় জল সরবরাহ সঠিক রাখার দাবিতে আধঘন্টা হাড়ি বালতি নিয়ে প্রতিটি পথ অবরোধ কর্মসূচির শামিল হয় বিজেপি কর্মীরা।ব্যস্ততম সময়ে এই অবরোধের জেরে বাঁকুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল যাওয়ার গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, বাঁকুড়া পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডে জলের সংকট শুরু হয়েছে। তৃণমূল পরিচালিত বাঁকুড়া পৌরসভার কেন্দ্রীয় আমরুৎ প্রকল্পের টাকা লুট করেছে বলেও অভিযোগ করেন বিজেপি নেতৃত্ব। আগামী দিনে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে জল সরবরাহ ঠিক না থাকলে বাঁকুড়া পৌরসভা স্তব্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন বিজেপি নেতৃত্ব। কিন্তু এই অবরোধ কর্মসূচিতে করোণা অতিমারির সময় মুখে মাক্স বিহীনভাবে আন্দোলন কিভাবে নেতৃত্ব দেয় একটি দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দলের নেতা সেই নিয়েই উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন।
জল সরবরাহের কিছুটা সমস্যা হচ্ছে তা এককথায় মেনে নিয়েছেন বাঁকুড়া পৌরসভার প্রশাসক মন্ডলীর উপপৌর প্রশাসক। তার দাবি দীর্ঘদিন তাপপ্রবাহ চলছে, বৃষ্টিপাত নেই, তাতেও বাঁকুড়া পৌরসভা জল সরবরাহ বিঘ্নিত হতে দেয়নি। আগামী দিন মানুষের জন্য এই পরিষেবা অক্ষুণ্ন থাকবে বলেই দাবি উপ পৌর প্রশাসক এর। আর বিজেপির বিধানসভা নির্বাচনের পরাজয় জেনেই মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।১০৫ কোটি টাকার কেন্দ্রীয় সরকারের আমরুৎ প্রকল্প এর প্রায় সাড়ে ১২ হাজার বাড়িতে পাইপলাইন এর সাহায্যে জল সরবরাহ করা হবে। তার মধ্যে ৯ হাজার বাড়িতে ইতিমধ্যেই পাইপ লাইন পাতার কাজ শেষ হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি কাজে কিছুটা ব্যাঘাত ঘটেছে, আগামী দিনে দামোদর প্রকল্প এছাড়া  গন্ধেশ্বরী দ্বারকেশ্বর জল প্রকল্পের মাধ্যমে বাঁকুড়া জেলা কে জলের সংকট থেকে বার করা হবে বলেই দাবি করেন উপ পৌর প্রশাসক।এখন দেখার শুধু রাজনীতি না সত্যিই জলের সমস্যা সমাধান হয় আগামী দিনে।

Post a comment

0 Comments