Subscribe Us

বিজেপির করার অপরাধে ফের কানধরে ওঠবস বর্ধমানে

গোটা রাজ্যের মত বর্ধমানেও চলছে আংশিক লকডাউন। জেলায় তো বটেই বর্ধমান শহরেও প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। আক্রান্তের পাশাপাশি মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে।তবুও তৃণমূল আছে তৃণমূলেই।

কোভিড আবহে সাধারণ মানুষজন আতঙ্কিত। এরই মধ্যে শনিবার বর্ধমান শহরের তিনকোনিয়ার পাশে গুডসশেড রোডে দুই বিজেপি সমর্থককে প্রকাশ্যে সবার সামনে কানধরে ওঠবস করানো হয়।এই ঘটনায় নাম জড়িয়েছে এক তৃণমূল নেতার।  অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেস নেতা,অশোক মণ্ডল।তিনি পূর্ববর্ধমান  ওবিসি ও এসসি সেলের জেলা সম্পাদক। 

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক আলোড়ন পড়েছে। বিজেপি নেতৃত্ব তীব্র প্রতিবাদ জানায়।

ভাইরাল হওয়া ভিডিও তে দেখা যাচ্ছে ,তৃণমূল নেতা অশোক মণ্ডল চেয়ারে বসে রীতিমত লাঠি হাতে বিজেপি করার অপরাধে দুই যুবককে শাস্তি দিচ্ছেন কান ধরে ওঠবস করিয়ে।পাশে আর কয়েকজন চেয়ারে বসে আছে (যদিও ভিডিওর সত্য তা যাচাই করেন News24x7)। 

তৃণমূল নেতা অশোক মণ্ডলের অবশ্য সাফাই পাড়ার ছেলে।ওরা ভুল করে বিজেপিতে চলে গেছে। তারপর পাটি অফিসে ভাঙচুর করে। কিন্তু তারা দুই বিজেপি সমর্থককে মারধর করা হয় নি।শুধুমাত্র কানধরে ওঠবস করানো হয়েছে। বিজেপি নেতা কল্লোল নন্দন বলেন, ওরা দলের সক্রিয় কর্মী নয়।তারা পুলিশের কাছে নালিশ জানাবে।

এখানে উল্লেখ্য ভোটের ফল ঘোষণার পরই বর্ধমান শহর লাগোয়া বৈকুন্ঠপুর বাজারে তৃণমূল কংগ্রেসের এক মহিলা নেত্রী প্রকাশ্য রাস্তায় ভরা বাজারে মেয়ের সামনে একজন মহিলা কান ধরে ওঠবস করায় বিজেপির করার অপরাধে। সেই ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়। তীব্র প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।

Post a Comment

0 Comments