Subscribe Us

৪০টি অসহায় পরিবারের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিল স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সদস্যরা

নীলেশ দাস,আসানসোল:- সোমবার বার্নপুর বনগা গ্রামে কোয়ারেন্টিন টিমের এর পক্ষ থেকে অসহায় ৪০টি পরিবারের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিলো আসানসোল পৌরনিগমের প্রশাসক অমরনাথ চট্টোপাধ্যায় সহ কোয়ারেন্টিন টিমের এর সদস্যরা। করোনা নিয়ে এলাকার মানুষদেরকে সচেতন করে। সদস্যদের এইরকম উদ্যোগে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকার মানুষেরা। 

এদিন আসানসোল পৌরনিগমের প্রশাসন অমরনাথ চট্টোপাধ্যায় বলেন,অর্গানিজেশন টা মানুষকে সঙ্গে নিয়ে চলার চেষ্টা করে এবং আজকেও তারা এই গ্রামে পৌঁছেছে কিছু মানুষের পাশে দাঁড়াবার চেষ্টা করেছে। যারা বিভিন্ন অসুবিধা হয় সম্মুখীন হচ্ছে এই লকডাউন পিরিওডে। তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করেছে,বিভিন্ন রকমে খাবার দেওয়া মাধ্যমে। আমি এই সাধু উদ্যোগে থাকতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য বলে মনে করছি। 

আমাদের যদি কোনো প্রয়োজন হয় এই কোয়ারেন্টিনের টিমের আমরা নিশ্চই তাদের পাশে থাকবো। নতুন প্রজন্ম আগামী দিনে দিশা দেখাবে। কোভিড কিন্তু প্রত্যেক মানুষকে শিক্ষা দিয়েছে। যে আর্থিক ভাবে শারীরিক ভাবে কেউ বলবান নয়,বলবান হচ্ছে পরিস্থিতি সময়  আজকে সেই ভাবনাটিকে শিক্ষা দিয়েছে কোভিড প্রত্যেকটি মানুষকে,এখানে জাতভেদ ভুলে গেছে সব।সাম্প্রদায়িকতা ভুলে গেছে সব উঁচুনিচু ভুলে গেছে সব ধনী গরীব ভুলে গেছে।মানুষ মানুষ হিসেবে  চলতে চাইছে।

আগামী দিনে একটাই বার্তা দিতে চাই,গোটা আসানসোল এদেরকে দেখে শিখুক,এদের মতো সব মানুষ যেনো সবার পাশে থাকুক বলে জানান তিনি।কোয়ারেন্টিনের সদস্য বলেন,আমরা বেশ কয়েকদিন ধরে, যবে থেকে এই লকডাউন পরিস্থিতি শুরু হয় তখন থেকে আমরা চেষ্টা করি যারা কোভিড পজিটিভ রয়েছে, তাদের খাবার পৌঁছে দেবার উদ্যোগ নিই। 

নিজেদের পকেট মানি ও কিছু মানুষের সাহায্য থেকে গরিব মানুষদের চাল ডাল বিভিন্ন ধরনের খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছি। আজকে আমরা ৪০ জনকে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলাম। আগামী দিনেও আমরা চেষ্টা করে যাবো। যে জায়গাগুলিতে এই পরিস্থিতিতে খাবার পৌঁছানো যাচ্ছে না সেই জায়গাগুলিতে আমরা খাবার পৌঁছে দেব।

Post a Comment

0 Comments