হটাৎ পরিষেবা বন্ধের নোটিশ খাঁদরা গ্রামীন হাসপাতালে, সমস্যায় করোনা রোগী সহ অন্যান্যরা

Subscribe Us

হটাৎ পরিষেবা বন্ধের নোটিশ খাঁদরা গ্রামীন হাসপাতালে, সমস্যায় করোনা রোগী সহ অন্যান্যরা



সোমনাথ মুখার্জি,অন্ডাল:- সরকারি স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বন্ধ রয়েছে স্বাস্থ্য পরিষেবা। আগাম ঘোষণা না থাকায় সমস্যায় পড়েছে রোগীরা। ঘটনাটি অন্ডাল ব্লকের খাঁন্দরা গ্রামীন হাসপাতালের। সাধারণ রোগের চিকিৎসার পাশাপাশি করোনা ভ্যাকসিন ও করোনা রোগ নির্ণয়ের পরীক্ষার জন্য সরকারি স্বাস্থ্য কেন্দ্রের উপর নির্ভরশীল বাসিন্দারা। এই অবস্থায় শনিবার ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পরিষেবা না পেয়ে হয়রানির স্বীকার হন অনেকে। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পর রোগীদের জানানো হয় শনি ও রবিবার স্বাস্থ্য পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। কার নির্দেশে ও কি কারনে পরিষেবা বন্ধ সেই বিষয়ে অবশ্য সদুত্তর দিতে পারেনি স্বাস্থ্য কেন্দ্রের আধিকারিকের পরিতোষ শোরেন । শনি ও রবিবার যে পরিষেবা বন্ধ থাকবে এই বিষয়ে কোনো নোটিশ দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ রোগীদের। এদিন অনেক রোগী বিরক্ত হয়ে ফিরে যান দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পর। কেউ এসেছিলেন ভ্যাকসিনের প্রথম অথবা দ্বিতীয় ডোজ নিতে। কেউ টেস্ট করাতে কেউবা এসেছিলেন সাধারণ রোগের চিকিৎসার জন্য।
সিঁদুলীর বাসিন্দা তনুশ্রী বারুই এর অভিযোগ আজ থেকে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে যাদের বয়স তাদের করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়া হবে বলে শুনেছিলাম। তাই ছেলেকে নিয়ে এসেছিলাম। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পর জানতে পারলাম ৩ তারিখ থেকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। আগে জানলে এভাবে হয়রানি হতে হতো না বলে অভিযোগ করেন তনুশ্রী দেবী।


অন্ডালের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্য সঞ্জয় সিনহা ক্ষোভের সাথে বলেন অতিমারি সময়ে বিনা কারণে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পরিষেবা বন্ধ রাখা অপরাধ ও অমানবিক কাজ।
স্বাস্থ্য কেন্দ্রের একটি সূত্র মারফত জানা যায় রাজ্যে ভোট গননা হবে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে গণনায় যারা উপস্থিত থাকবেন তাদের করোনা পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করেছে কমিশন। আজ অর্থাৎ শনিবার স্বাস্থ্যকেন্দ্রে তাদের করোনা পরীক্ষা করা হবে। সেই কারণে অন্য সব পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। যদিও এই বিষয়ে স্বাস্থ্য কেন্দ্রের কোন অধিকারিক সরকারিভাবে কিছু জানায়নি।

Post a comment

0 Comments