সহায়ক মূল্যে ধান বিক্রি শুরু না হওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন পূর্ব বর্ধমানের গলসির বোরো চাষিরা

Subscribe Us

সহায়ক মূল্যে ধান বিক্রি শুরু না হওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন পূর্ব বর্ধমানের গলসির বোরো চাষিরা

সহায়ক মূল্যে ধান বিক্রি শুরু না হওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন পূর্ব বর্ধমানের গলসির বোরো চাষিরা। এলাকার প্রায় সব জায়গায় কম বেশি পনেরো কুড়ি দিন আগে কাটা হয়ে গেছে  বোরো চাষের ধান। সেই ঝাড়াই ধান দামের অভাবে  খামারেই পরে আছে । বিক্রি না হওয়ায় পড়ে পড়ে সেই ধান থেকে অঙ্কুর বের হচ্ছে। 

খামারের পাশাপাশি রাস্তার পাশে ও মাঠের ধারে ও সেচ খালের পাড়ে পরে আছে  ধান। চুরি হবার ভয়ে সেই ধান রাত জেগে পাহাড়া দিচ্ছেন চাষীরা।বোরো ধান নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন গলসি চাষিরা। তাদের দাবী ধান কাটার সময় প্রকৃতির খামখেয়ালিপনার জেরে অনাবরত বৃষ্টি হয়েছে। ফলে ধান কাটার খরচ দ্বিগুন থেকে তিনগুণ হয়ে গেছে। এদিকে কাটা ধান কোনক্রমে খামারে এলেও ধানের দাম পাচ্ছেন না। তাই কেউ বাড়ির ভিতরে, কেউ খামারে কেউবা ডিভিসি সেচ খালের পাড়ে ত্রিপল ঢাকা দিয়ে ফেলে রেখেছেন  ধান।

 ত্রিপল চুইয়ে জলে ভিজে সেই ধান থেকে অঙ্কুর বের হচ্ছে। কিছুদিনের মধ্যে ওই ধান বিক্রি না হলে  তা লাল হয়ে নষ্ট হয়ে যাবে। অগত্যাই চাষিরা এখন সরকারী সহায়ক মূল্যে ধান বিক্রির জন্য দিন গুনছেন। তাদের দাবী হয় সরকার তাদের ধান কিনে নিক অথবা স্থানীয় রাইস মিল কিছু কম দামে তাদের ধান বিক্রি করার ব্যবস্থা করা হোক। তাহলে  একটু হলেও বেঁচে যাবেন এলাকার কৃষকরা।

Post a Comment

0 Comments

close