পূর্ব বর্ধমান জেলার ঘরছাড়া বিজেপি কর্মীদের ঘরে ফেরানোর প্রক্রিয়া শুরু

Subscribe Us

পূর্ব বর্ধমান জেলার ঘরছাড়া বিজেপি কর্মীদের ঘরে ফেরানোর প্রক্রিয়া শুরু

পূর্ব বর্ধমান জেলার বিজেপির ঘরছাড়া কর্মীদের ঘরে ফেরানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এই প্রক্রিয়ার একদিকে রাজনৈতিক উদ্যোগ আর অন্যদিকে আইনি দিকটি রয়েছে।রাজ্যের বিজেপি নেত্রী তথা আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল এই প্রক্রিয়ার মূলে রয়েছেন।

বিজেপি রাজ্যের লিগাল সেলের নেত্রী ও হাইকোর্টের আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল হাইকোর্টে রাজ্যজুড়ে তৃণমূলের আক্রমণের ঘটনার অভিযোগ তুলে তার বিরুদ্ধে মামলা করেন।গত ২রা মে রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর বিভিন্ন এলাকা থেকে বিজেপি নেতা ও কর্মীদের মারধর করার অভিযোগ ওঠে।ইতিমধ্যে তাদের কেউ কেউ বাড়ি ফিরলেও  অনেক বিজেপি  কর্মী এখনো ঘরছাড়া রয়েছেন।

বর্ধমান জেলা বিজেপি কার্যালয়ে বহু ব্লকের বিজেপি কর্মীরা আশ্রয় নিয়েছেন। তাদের বাড়ি  পৌঁছে দিতে মহিলা নেত্রী ও হাইকোর্টের আইনজীবী  প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল এদিন বর্ধমানের জেলা বিজেপি কার্যালয়ে আসেন।বিজেপি কর্মী ও তাদের পরিবারবর্গের  সঙ্গে দেখা করেন এবং তাদের বাড়ি ফেরাতে নিজ উদ্যোগে খণ্ডঘোষ এলাকায় যান।

এদিন বিজেপি নেত্রী  জানান, 'বিজেপি কর্মীদের বাড়ি ফেরার পর যদি তৃণমূল আবার  আক্রমণ চালায় তাহলে পূর্ব বর্ধমান জেলার সংশ্লিষ্ট এলাকার  পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে এফ আই আর করা হবে কলকাতা হাইকোর্টে। তিনি বলেন, একটা দল জিতেছে বলেই অন্যদলের কর্মীরা আক্রান্ত হবেন এটা কেমন গণতন্ত্র?  বিজেপি কর্মীদের বাড়ির বাইরে রাত কাটাতে হবে এটা আমরা মানছি না।' তিনি আরো বলেন , আদালতের রায়ের মধ্যেই এই ঘরছাড়াদের আইনিভাবে ঘরে ফেরবার কথা রয়েছে।এর অন্যথা হলে আবার আদালতের দ্বারস্থ হবেন তাঁরা।

জেলা বিজেপির সহ সভাপতি প্রবাল রায় জানান,এই উদ্যোগে প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল  ছাড়াও রাজ্য কোষাধ্যক্ষ ডাঃ সাওয়ার আছেন। আজ খন্ডঘোষের কিছু এলাকা দিয়ে এই প্রক্রিয়া শুরু হল।এদিনই রায়না মেমারি ও বর্ধমান দক্ষিণের ঘরছাড়ারা ঘরে ফিরবেন। কাল একইভাবে আগামীকাল ভাতার আউশগ্রাম গলসী ও বর্ধমান উত্তরের বাকিদের তারা ঘরে পৌঁছে দেবেন।

Post a Comment

0 Comments

close