বর্ধমানের নীলপুরে প্রতিবেশী পুরসভার কর্মীর অত্যাচারের প্রতিকার না হলে আত্মহত্যার হুমকি দিলেন এক মহিলা

Subscribe Us

বর্ধমানের নীলপুরে প্রতিবেশী পুরসভার কর্মীর অত্যাচারের প্রতিকার না হলে আত্মহত্যার হুমকি দিলেন এক মহিলা

তার উপর প্রতিবেশী পুরসভার কর্মীর অত্যাচারের প্রতিকার না হলে তিনি আত্মহত্যা করবেন। সোমবার বিকেলে বর্ধমানের নীলপুরের এক মহিলার এই দাবি ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ায়। ওই মহিলার অভিযোগের তীর এক পুরসভার কর্মীর বিরুদ্ধে। এরপরই পুলিশ সুপারের অফিস থেকে নির্দেশ পেয়ে পুলিশ অভিযোগকারিনীর এলাকায় যায়।তার অভিযোগ  খতিয়ে দেখা হবে বলে অতিরিক্ত পুলিশসুপার জানিয়েছেন।

বর্ধমান শহরের বড়নীলপুর এলাকার  ১২নম্বর ওয়ার্ড শান্তিপাড়া এলাকায়  বাসিন্দা  দীপালী দাস বহু বছর ধরে  বসবাস করছেন।বেশ কয়েকবছর আগে তার স্বামী মারা যান। দুই নাবালীকা মেয়েকে নিয়ে বসবাস করছেন বাড়িতে । নিজে অন‍্যের বাড়িতে কাজ করে সংসার চালান তিনি। 

তার অভিযোগ। তৃনমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর তার উপর অত‍্যাচার চালাচ্ছেন পাশের বাড়ির লোকজন।যার নাম মৌসুমী সরকার ও সঞ্জীব সরকার ।তার অভিযোগ,যে বাড়িতে তিনি বসবাস করেন সেই বাড়িতে থাকতে দেওয়া হবে না বলে হুমকি চলছে। বর্ধমান পৌরসভার কর্মী মৌসুমী সরকার ও সঞ্জীব সরকার এলাকার তৃণমূল নেতাদের মদতে তার জীবন অতিষ্ঠ করে দিয়েছেন।।

এদিন তিনি আরো বলেন,ওই মহিলা মৌসুমী সরকারের সাথে এলাকার  তৃনমূলের নেতারাও তাকে দলবল নিয়ে একাধিকবার  হুমকি দেয় ঘর  ছাড়ার।দীপালীদেবী  বিভিন্ন ভাবে প্রশাসনের কাছে দরবার করেছেন।ফল হয়নি। তার দাবি, তার  নিজস্ব জায়গার কাগজপত্র সব রয়েছে । অবশেষে সোমবার পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ সুপারের  অফিসে  যান এবং নিজের গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আত‍্যহত‍্যা করবেন বলে জানান । কান্নাকাটি করে তিনি একেবারেই  ভেঙে পড়েন।

আরো পড়ুন:- এবার বাস ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে সরব হলেন বর্ধমান টাউন সার্ভিস ওনার্স সমিতি 

অবশেষে তার কান্নাকাটি দেখে পুলিশ সুপারের অফিস থেকে নির্দেশ যায় বর্ধমান  থানায়। তারপরেই ওই মহিলার বাড়িতে বর্ধমান থানার পুলিশ গিয়ে দুপক্ষের সাথে কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে ।এদিন পূর্ব বর্ধমান জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কল‍্যান সিংহ  রায় বলেন, বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি। এই ধরণের কোনো ঘটনা ঘটে থাকলে পুলিশ সমস্যা নিরসন করার চেষ্টা করবে।

Post a Comment

0 Comments