বিজেপি কর্মী ও তার পরিবারের ওপর হামলার অভিযোগ উঠলো তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে,অভিযোগ অস্বীকার তৃণমূলের

Subscribe Us

বিজেপি কর্মী ও তার পরিবারের ওপর হামলার অভিযোগ উঠলো তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে,অভিযোগ অস্বীকার তৃণমূলের

তনুশ্রী চৌধুরী,কাঁকসা:- বিজেপি করার অপরাধে এক পরিবারের ওপর হামলার অভিযোগ উঠলো তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের দিকে।এই ঘটনার জেরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে কাঁকসার বাঁশকোপার ঘোষ পাড়ায়।দুষ্কৃতীদের তান্ডবে পরিবারের দুই সদস্য দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি,আক্রান্ত এক মহিলাও,তার হাত ভেঙে গেছে।

কাঁকসারই এক বেসরকারী কারখানায় কাজ করতো উজ্জ্বল ঘোষ।অভিযোগ,ভোটের আগে এক বেসরকারী কারখানার মালিকদের বলে কয়ে কাজে ঢুকেছিলো উজ্জ্বল,কিন্তু ঠিকাদারকে ভয় দেখিয়ে স্থানীয় বেশ কিছু তৃণমূল নেতা উজ্জ্বলকে কাজ থেকে বসিয়ে দেয়,এরপর স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের সাথে যোগাযোগ শুরু করেন উজ্জ্বল বাবু যাতে করে কাজটা যদি ফিরে পাওয়া যায়, আর এতেই বাড়ে অশান্তি।

পরিবারের অভিযোগ, ভোটে তৃণমূল জেতার পর থেকেই ছেলের কাজ ফিরে পাওয়ার সম্ভাবনা এক্কেবারে চলে যায়,উল্টে পরিবারের ওপর চলে নানারকম মানসিক অত্যাচার,যা চরমে পৌঁছোয়,বৃহস্পতিবার রাতে। উজ্জ্বল বাবু মুচিপাড়া থেকে বাঁশকোপায় নিজের বাড়ীতে ফিরছিলেন , সেইসময় হটাৎই বাঁশকোপা টোল প্লাজার কাছে স্থানীয় বেশ কয়েকজন তৃণমূল কর্মী তার বাইক আটকিয়ে মারধর করে বলে অভিযোগ,কোনোরকমে গাড়ি ছেড়ে রেখে ঘরে চলে আসে উজ্জ্বল ,কিন্তু এতেও শেষ রক্ষা হয়নি,উজ্জ্বলের ঘর ঘিরে ধরে শুরু হয় কটূক্তি,উজ্জ্বলকে দুষ্কৃতীদের হাত থেকে বাঁচাতে গিয়ে আক্রান্ত হয় তার স্ত্রী,ও এক আত্মীয়,হাত ভেঙে যায় উজ্জ্বল ঘোষের স্ত্রী,বুকে আঘাত পান উজ্জ্বল ঘোষের এক আত্মীয়র।

দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে দুই জনকেই ভর্তি করা হয়েছে,অভিযুক্ত তৃণমূল কর্মীদের হাত থেকে রেহাই পায়নি উজ্জ্বলের বৃদ্ধ বাবা মা,অভিযোগ হাসপাতাল নিয়ে আসার জন্য গাড়িকে গ্রামে ঢুকতে দেয়নি অভিযুক্ত তৃণমূল কর্মীরা,শেষে পুলিশ এসে হাসপাতালে নিয়ে আসে আহতদের।

বিজেপি পূর্ব বর্ধমান সদর জেলা সহ সভাপতি রমন শর্মার অভিযোগ,স্রেফ বিজেপি করার অপরাধে এই পরিবারের ওপর অত্যাচার শুরু হয়েছে,অবিলম্বে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব।যদিও দলীয় কর্মীদের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কাঁকসা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি দেবদাস বক্সী।

গোটা ঘটনায় সুবিচারের অপেক্ষায় এখন কাঁকসার বাঁশকোপা গ্রামের ঘোষ পরিবার।পুলিশ যদি কড়া ব্যবস্থা না নেয় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তাহলে লাগাতার আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিজেপি নেতৃত্ব।শুধু কাঁকসার বাঁশকোপা গ্রাম নয়, দুর্গাপুররের কাদারোড এলাকায় এক বিজেপি কর্মীকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে,আহত বিজেপি কর্মীর মাথা ফেটে যাওয়ায় তাকেও দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে,এই ক্ষেত্রেও আহত ঐ বিজেপি কর্মীর অভিযোগ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের দিকে।পৃথক দুই ঘটনায় এখন টানটান রাজনৈতিক উত্তেজনা শহর দুর্গাপুরে ও কাঁকসায়।

Post a Comment

0 Comments

close