চাষে ক্ষতি ও দেনার দায়ে বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হলেন কৃষক

Subscribe Us

চাষে ক্ষতি ও দেনার দায়ে বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হলেন কৃষক

প্রতিনিধি,পূর্ববর্ধমান:- বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হলেন কৃষক তাপস ভট্টাচার্য্য(৫৭)। চাষে ক্ষতি ও দেনার দায়ে আত্মঘাতী হয়েছেন বলে দাবি পরিবারের।পূর্ববর্ধমানের বাসুদা গ্রামের বাসিন্দা তাপসবাবুর বাড়িতে রয়েছেন স্ত্রী শুক্লাদেবী,দুই ছেলে অঙ্কুর ও ইন্দ্রজিৎ। পারিবারিক প্রায় ১২ বিঘা জমি রয়েছে তাপসবাবুদের। অঙ্কুর ও ইন্দ্রজিৎ দু'জনেই বেসরকারি সংস্থায় কাজ করতেন। লকডাউনের জেরে তাদের চাকরি চলে যায়।বছরখানেক ধরে দুজনেই বাড়িতে রয়েছেন। 

শুক্রবার সকালের দিকে বাড়ি থেকে ভাতার বাজারে গিয়েছিলেন তাপসবাবু।বিকেল তিনটে নাগাদ বাড়ি ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখন তাপসবাবু নিজেই বাড়িতে জানান তিনি বিষপান করেছেন। সঙ্গে সঙ্গে পরিবার ও প্রতিবেশীরা মিলে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ মৃত্যু হয়। শনিবার দেহটি ময়নাতদন্ত করা হয়েছে।

মৃতের ভাই প্রসাদ ভট্টাচার্য্য বলেন,' চাষে পরপর ক্ষতি ও চাষ করতে গিয়ে বেশকিছু টাকা দেনা হয়ে গিয়েছিল। ঋণ পরিশোধ কিভাবে হবে সেই চিন্তা ও হতাশা থেকেই দাদা আত্মঘাতী হয়েছেন।'যদিও ভাতার পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি গোপাল বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন,'বাসুদা, গ্রামেরই ব্যক্তি ঠিকাদারি করতেন। ব্যবসায়িক কারনে ঋণ হতে পারে। তবে এর সঙ্গে চাষে ক্ষতির সম্পর্ক নেই।'

Post a Comment

0 Comments

close