Type Here to Get Search Results !

পূর্ব বর্ধমানের রায়নায় হাওড়ার ব্যবসায়ী খুনের ঘটনায় চাঞ্চল্যকর দাবি মৃতের বাবার

নিজস্ব প্রতিনিধি:- পূর্ব বর্ধমানের রায়না থানার দেরিয়াপুর গ্রামে ব্যবসায়ী খুনের ঘটনায় নতুন মোড়। মৃতের বাবার দাবি, 'তার দুই  ভাইপো সুপারি কিলার লাগিয়ে তার ছেলেকে খুন করিয়েছে।'গতকাল হাওড়ার এক ব্যবসায়ী খুন হয়েছিলেন পূর্ব বর্ধমানের রায়নার গ্রামের বাড়িতে। মৃত ব্যবসায়ীর নাম সব্যসাচী মণ্ডল (৪৪)।বাড়ি রায়নার দেরিয়াপুর গ্রামে।

বর্তমানে তিনি থাকেন  হাওড়ার শিবপুরে।সেখানে তার পলিথিনের ব্যবসা আছে।শুক্রবার সব্যসাচী মণ্ডল এক বন্ধুকে নিয়ে গ্রামের বাড়ি দেরিয়াপুরে আসেন।রাতে বাড়ির ছাদে রান্না হচ্ছিল। সেই সময় সব্যসাচী মণ্ডলের গাড়ির চালক তাকে ছাদ থেকে নীচে নিয়ে যায় কেউ ডাকছে বলে।তারপরেই তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেন সব্যসাচীর বন্ধু রাজবীর সিং ও রাধুনি পার্থ সান্যাল।তারাই সব্যসাচীকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে জানান। এই ঘটনায় গাড়ির চালক ও রাধুনি  দু'জনকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে পুলিশ। 

আজ মৃতের বাবা দেবকুমার মণ্ডল একটি চাঞ্চল্যের দাবি করে বসেন। তার দাবি, 'তাদের পরিবারে সম্পত্তি নিয়ে চরম বিবাদ চলেছে। ২০১৬ সালে তার মায়ের মৃত্যুর পর তার ভাইপোরা তার ছেলেকে শ্মশানে বেধড়ক মারধর করে। তার ধারণা, তার দুই ভাইপো দীনবন্ধু এবং সোমনাথ সুপারি কিলার লাগিয়ে তার ছেলেকে গুলি করে কুপিয়ে খুন করিয়েছে।' আজ রায়না থানায় তার ছোট ভাই গৌরহরি মন্ডল, ভাতৃবধু পূর্ণিমা মন্ডল,  ভাইপো দীনবন্ধু মন্ডল ও সোমনাথ মন্ডলের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। 



আরো পড়ুন:- ডাকাতির উদ্যেশে জড়ো হওয়া ৫ জনের একটি ডাকাত দলকে গ্রেফতার করলো কাঁকসা থানার পুলিশ

তার আবেদন,  প্রশাসন আর আদালত এই নৃশংস খুনের বিচার করুক।দোষীদের শাস্তি দিক। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রায়না থানার পুলিশ। 

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কল্যাণ সিংহরায় বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত কি ভাবে খুন করা হলা তা বলা সম্ভব নয়।তবে মৃতের বাবার অভিযোগের পরিপেক্ষিতে আমরা সব সব দিকেই নজর রাখছি।সেই ভাবেই তদন্ত শুরু হয়েছে। গুলি চালানোর বিষয়টি তার কাছে পরিস্কার নয়।তদন্ত রিপোর্টের পরই গোটা বিষয়টি পরিস্কার হয়ে যাবে।

অন্যদিকে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সুপারি কিলার দিয়ে খুন করা হয়েছে এটা ধরে নিয়েই পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad