Subscribe Us

বন্যা পরিস্থিতির জন্য কেন্দ্রকেই দায়ী করলেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী


নিজস্ব প্রতিনিধি,পূর্ব বর্ধমান:- বন্যা পরিস্থিতির জন্য কেন্দ্রকেই দায়ী করলেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রীও। শুক্রবার সুব্রত মুখোপাধ্যায় বর্ধমানে সৃষ্টিশ্রী মেলার উদ্বোধন করতে এসে একথা বলেন। তিনি আরো বলেন রাজ্যকে ঠিকমত না জানিয়েই জল ছাড়ায় এই বিপত্তি ঘটেছে। একধাপ এগিয়ে তিনি বলেন, মানুষের কারণে এমন হলে তাকে ম্যানমেড বন্যাই বলা যায়। এদিন তিনি আরো বলেন,না জানিয়ে জল ছাড়া আর টানা বর্ষণে বেশ কিছু এলাকায় জল ঢুকেছে। এতে তারা উদ্বিগ্ন। যাতে শস্যের বড় রকমের ক্ষতি না হয় সে জন্য উদ্বেগ আরো বেশি। মানুষকে সচেতন না করারা সুযোগ দিয়ে অনেক পরিমাণে জল ছাড়ার নামই ম্যানমেড বন্যা। তিনি আরো জানান,মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে তিনি বাঁকুড়ায় ত্রাণ নিয়ে যাবেন।

অন্যদিকে পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের ভেদিয়ায় প্লাবিত এলাকা পরিদর্শনে যান জেলাশাসক প্রিয়াঙ্কা সিংলা। এদিন আউশগ্রামের বিধায়ক অভেদানন্দ থান্ডারও এলাকায় যান। তারা যে এলাকায় বাঁধ ভেঙেছে সেখানে এলাকার মানুষের সুবিধা অসুবিধা জেনে ব্যবস্থা গ্রহণের ব্যবস্থা করেন। 

অজয় নদের জলে প্লাবিত হয়েছে পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের ভেদিয়া অঞ্চল। বৃহস্পতিবার বিকেল থেকেই অজয়ের জল বাড়তে শুরু করে। রাতে ভেদিয়ার সাঁতলা গ্রামের অজয় নদের বাঁধে ফাটল বিশাল আকার ধারণ করে।বাঁধ ভেঙে অজয়ের জল সাঁতলা বাগবাটি সহ চার পাঁচটি গ্রামকে প্লাবিত করেছে। যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে বাঁধ মেরামতের চেষ্টা করছে প্রশাসন। বিঘের পর বিঘে ধানের জমি জলের তলায়।ফলে চরম বিপদ শঙ্কায় এলাকার বাসিন্দারা। 




এদিন জেলাশাসক পরিদর্শন করার পর জানান, পাঁচ টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। সবাইকে সরিয়ে উঁচু জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আপাতত ভয়ের কোনো কারণ নেই।কারণ জল কমতে শুরু করেছে। তিনি আরো জানান; জেলার আউশগ্রাম মঙ্গলকোট কেতুগ্রামের বেশ কিছু এলাকায় জলমগ্ন হয়েছে। জেলায় প্রায় চার হাজার মানুষকে সরিয়ে নিয়ে যেতে হয়েছে। রিলিফ সেন্টারে খাবার সহ সব ব্যবস্থা রয়েছে বলে জানান তিনি। তিনি আরো জানান; জল নামলে বাঁধ মেরামতির কাজে হাত দেওয়া হবে।

বিধায়ক অভেদানন্দ থান্ডার জানান; প্রায় ৫০ টি বাড়ি ভেঙে গেছে। জল নামলে আরো বাড়ি ভাঙতে পারে। প্রচুর ফসলের জমি জলের তলায়।তিনিও জানান; আর নতুন করে ভাঙনের আশঙ্কা নেই।জল কমতে শুরু করেছে।

Post a Comment

0 Comments